অবৈধ বিদ্যুৎ-গ্যাস সংযোগ থেকে সাততলা বস্তির আগুন: ফায়ার ডিজি

5

মহাখালীর সাততলা বস্তিতে আগুনের সূত্রপাত নিয়ে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসাইন বলেছেন, অবৈধ গ্যাস ও বৈদ্যুতিক সংযোগ থেকে আগুন লাগার ঘটনা ঘটতে পারে।

সোমবার (৭ মার্চ) সকালে ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিসের এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমরা অগ্নিকাণ্ডের খবর পাই ভোর ৩টা ৫৯মিনিটে। ১৩ মিনিটের মধ্যে আমাদের প্রথম ইউনিট (৪টা ১২ মিনিটে) ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং তখন থেকে আমরা কাজ করছি। পরে ভোর ৬টা ৩৫ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসাইন বলেন, বস্তিতে টিনের ঘর অনেক বেশি সেপারেশন হওয়ায় আমাদের আগুন নেভাতে বেগ পেতে হয়েছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আমাদের ১৮টি ইউনিট কাজ করেছে। এখন পর্যন্ত আগুনে কোন হতাহতের ঘটনা আমাদের চোখে পড়েনি, কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা এখনই বলা সম্ভব নয়, তবে শতাধিক ঘর পুড়ে গেছে বলে আমরা ধারণা করছি। ঘরে থাকা আসবাবপত্র পুড়ে গেছে।

আরও পড়ুন: সাততলা বস্তির হাজারো ঘর পুড়ে ছাই

তিনি বলেন, ঘনবসতি এবং বেশি সেপারেশন থাকায় আমাদের ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের আগুনের নির্দিষ্ট স্থানে পৌঁছাতে কিছুটা বাধাগ্রস্ত হয়েছে। এ কারণে আগুন নেভাতে কিছুটা সময় বেশি লেগেছে। এছাড়া দাহ্য বস্তু উপস্থিতি বেশি থাকায় আগুনটা বেশি ছড়িয়েছে।

ভোর ৪টার দিকে ভয়াবহ এ আগুনের সূত্রপাত হয়। প্রথমে ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। পরে আগুনের তীব্রতা বাড়তে থাকলে আরও বাড়ানো হয় ইউনিটের সংখ্যা। ফায়ার সার্ভিসের ১৮টি ইউনিট আড়াই ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনত সক্ষম হয়।

নিউজ হান্ট/এনএইচ

পূর্ববর্তী নিবন্ধসাততলা বস্তির হাজারো ঘর পুড়ে ছাই
পরবর্তী নিবন্ধহেফাজতের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হবে আজ