আজ ভারতে ১০ হাজার রেমডেসিভির পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ

12

করোনায় দিনদিনই নাজুক হচ্ছে ভারতের পরিস্থিতি। দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেসামাল হয়ে পড়েছে দেশেটি। টানা কয়েক দিন ধরে দেশটিতে দৈনিক চার লাখের কাছাকাছি রোগী শনাক্ত হচ্ছে। মৃত্যু হচ্ছে প্রতিদিন তিন হাজারেরও বেশি মানুষের। হাসপাতালগুলোতে ঠাঁই নেই। ভেঙ্গে পড়েছে চিকিৎসা ব্যবস্থা। এমনকি শ্মশান গেটে ঝুলছে হাউসফুল নোটিশ।

এ অবস্থায় কোভিড মহামারি মোকাবিলায় ভারতে জরুরি ওষুধ ও চিকিৎসা সামগ্রীর অংশ হিসেবে ১০ হাজার ইনজেক্টেবল অ্যান্টি-ভাইরাল রেমডেসিভির পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ।

আজ বুধবার (৫ মে) এ ওষুধ পাঠানো হবে। বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে পোঠানো হচ্ছে রেমডেসিভির ওষুধ।

বিষয়টি নিশ্চত করেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পূর্ব) মাশফি বিনতে শামস।

পর্যায়ক্রমে অন্যান্য জরুরি ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠানো হবে এবং প্রয়োজনে দিল্লিকে আরো সহায়তা দিতে আগ্রহী ঢাকা। ভারত যে চাহিদাপত্র দিয়েছে, তা নিয়েও কাজ করছে ঢাকা।

ভারতে করোনার পরিস্থিতি দ্রুত অবনতি হওয়ায় বাংলাদেশ সরকার সেদেশের মানুষের জন্য জরুরিভিত্তিতে ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠানোর প্রস্তাব দেয়।

তবে এই ওষুধের মধ্যে প্রয়োজনীয় রেমডেসিভিরও রয়েছে। ভারতে এখন প্রচুর রেমডেসিভির সংকট। সে কারণে এই ওষুধ পাঠানো হচ্ছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইনজেক্টেবল অ্যান্টি-ভাইরালের পাশাপাশি ওরাল অ্যান্টি-ভাইরাল, ৩০ হাজার পিপিই কিটস এবং কয়েক হাজার জিঙ্ক, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন-সি এবং প্রয়োজনীয় ট্যাবলেটও পাঠানো হবে।

নিউজ হান্ট/এনএইচ

পূর্ববর্তী নিবন্ধতৃতীয়বারের মতো মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিলেন মমতা
পরবর্তী নিবন্ধসেই ইউনুছ আলীকে জরিমানা