আবাসিক হোটেলে তরুণীর ঝুলন্ত মরদেহ

78

কক্সবাজার শহরের পর্যটন এলাকার হোটেল মোটেল জোনের আবাসিক হোটেল কক্ষ থেকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় এক তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার বিকাল ৫টার দিকে আবাসিক হোটেল সি পার্ল-২ থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে।

কক্সবাজার সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বিপুল চন্দ্র দে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। হোটেল কক্ষ থেকে উদ্ধার করা তরুণীর নাম জাতীয় পরিচয়পত্র মতে নিহত ছেনুয়ারা বেগম (২১)। তিনি চট্টগ্রাম শহরের চকবাজার এলাকার মোহাম্মদ হোসেনের মেয়ে।

আবার পৃথক সূত্র বলছে, নিহত তরুণীর বাড়ি টেকনাফের হ্নীলা এলাকায়। তবে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত তরুণীর সঠিক নাম পরিচয় পাইনি পুলিশ।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১০টায় কলাতলীর আবাসিক হোটেল সি পার্ল-২ এর একটি কক্ষ ভাড়া নেয় এক তরুণ ও নিহত তরুণী। শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত কক্ষের ভেতরে তাদের কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে হোটেল কর্তৃপক্ষের সন্দেহ জাগে।

পরে হোটেল কর্তৃপক্ষ একটি বিকল্প চাবি দিয়ে কক্ষটির তালা খুললে তরুণীটিকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়। এ সময় কক্ষের ভেতরে ওই তরুণ ছিল না। পরে বিষয়টি হোটেল কর্তৃপক্ষ অবহিত করলে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফ্যানের সঙ্গে বিছানার চাদর পেঁচানো অবস্থায় ওই তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

পরে কক্ষটি তল্লাশি করে একটি জাতীয় পরিচয়পত্র পায় পুলিশ। এতে তরুণীর নাম ছেনুয়ারা বেগম এবং বাড়ির ঠিকানা উল্লেখ করা হয়েছে চট্টগ্রাম শহরের চকবাজার এলাকায়। তবে পুলিশ অন্য একটি সূত্রে নিহত তরুণীর বাড়ি টেকনাফের হ্নীলা এলাকায় বলে জানতে পেরেছে।

পুলিশ জানায়, তরুণীর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলে তরুণীর মৃত্যুও আসল রহস্য উদঘাটন করা যাবে।

নিউজ হান্ট/ম

পূর্ববর্তী নিবন্ধশ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ের দিন
পরবর্তী নিবন্ধপশ্চিমবঙ্গে আংশিক লকডাউন