ইউরোপ থেকে ফিরলেই বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন

14

যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপের যেকোনো দেশ থেকে ফিরলেই যাত্রীদের সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার বা সরকার নির্ধারিত আবাসিক হোটেলে (নিজ খরচে) ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শেষে করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসলে বাড়ি যাওয়া যাবে।

মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে এ আদেশ কার্যকর হবে। আজ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) ফ্লাইট স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড রেগুলেশন সদস্য গ্রুপ ক্যাপ্টেন চৌধুরী এম জিয়াউল কবির স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি হয়।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ‘যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপ থেকে আগত সব যাত্রীকে সরকার নির্ধারিত প্রতিষ্ঠানে বা নিজ খরচে সরকার নির্ধারিত হোটেলে ১৪ দিন বাধ্যতামূলকভাবে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। যাত্রীর করোনার টিকা দেওয়া থাকলেও একই নিয়ম প্রযোজ্য হবে।

ইউরোপ ছাড়া অন্যান্য দেশ থেকে যাঁরা আসবেন, তাঁদের ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নিয়ম কঠোরভাবে অনুসরণ করতে হবে।’

নির্দেশনায় আরও বলা হয়, ‘ফ্লাইটে ওঠার ৭২ ঘণ্টা আগে করোনার নমুনা দিয়ে পিসিআর টেস্ট করিয়ে নেগেটিভ রিপোর্ট কাছে রাখতে হবে। নতুবা কোনো যাত্রী বিদেশের কোনো বিমানবন্দর থেকে বোর্ডিং পাবেন না। এ নিয়ম আগের মতোই কার্যকর থাকছে। বিমানবন্দর ও ফ্লাইটে সব যাত্রীকে মাস্ক পরতে হবে।’

এর আগে ডিসেম্বরের প্রথমদিকে যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের জন্য ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক করা হয়। পরবর্তীতে তা কমিয়ে সাতদিন করা হয়।

গত বছর দেশে প্রথম দফার করোনা সংক্রমণ শুরু হলে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করাসহ নানান ধরনের বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার। তবে এবার সংক্রমণ বাড়ায় সাধারণ ছুটি বা লকডাউন ঘোষণা করা না হলেও বেশ কিছু বিশেষ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

নিউজ হান্ট/ইস