এক মাসে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩৯৮

4

দেশে গত জুন মাসে দেশে ৩২৭টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৩৯৮ জন নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন ৪২৩ জন। আজ বুধবার (৭ জুলাই) রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিহতের মধ্যে ৫২ জন নারী, শিশু ৩৩ জন। ১৪২টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ১৫১ জন, যা মোট নিহতের ৩৭.৯৩ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার ৪৩.৪২ শতাংশ। দুর্ঘটনায় ৯৪ জন পথচারী নিহত হয়েছে, যা মোট নিহতের ২৩.৬১ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ৬৭ জন, অর্থাৎ ১৬.৮৩ শতাংশ।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, এই সময়ে ২টি নৌ-দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত এবং একজন আহত হয়েছে। একটি রেলপথ দুর্ঘটনায় একজন নিহত হয়েছে।

দুর্ঘটনায় যানবাহনভিত্তিক নিহতের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, মোটরসাইকেল চালক ও আরোহী ১৫১ জন (৩৭.৯৩ শতাংশ), বাসযাত্রী ১৪ জন (৩.৫১ শতাংশ), ট্রাক-পিকআপ-ট্রলি যাত্রী ৩৮ জন (৯.৫৪ শতাংশ), মাইক্রোবাস-প্রাইভেটকার-এ্যাম্বুলেন্স যাত্রী ২০ জন (৫.০২ শতাংশ), থ্রি-হুইলার যাত্রী (সিএনজি-ইজিবাইক-অটোরিকশা-টেম্পু-লেগুনা) ৫৭ জন (১৪.৩২ শতাংশ), নসিমন-মাহিন্দ্র-চান্দের গাড়ি-টমটম যাত্রী ৯ জন (২.২৬ শতাংশ) এবং প্যাডেল রিকশা-রিকশাভ্যান-বাইসাইকেল ও ঠেলাগাড়ি আরোহী ১৫ জন (৩.৭৬ শতাংশ) নিহত হয়েছেন।

দুর্ঘটনার বিভাগের পরিসংখ্যান বলছে, ঢাকা বিভাগে দুর্ঘটনা ২৬.২৯ শতাংশ ও প্রাণহানি ২৫.৮৭ শতাংশ, রাজশাহী বিভাগে দুর্ঘটনা ১১.৬২ শতাংশ ও প্রাণহানি ১৩.৫৬ শতাংশ, চট্টগ্রাম বিভাগে দুর্ঘটনা ২০.৭৯ শতাংশ ও প্রাণহানি ২১.৩৫ শতাংশ, খুলনা বিভাগে দুর্ঘটনা ৮.২৫ শতাংশ ও প্রাণহানি ৭.৫৩ শতাংশ, বরিশাল বিভাগে দুর্ঘটনা ৮.৮৬ শতাংশ ও প্রাণহানি ৮.৫৪ শতাংশ, সিলেট বিভাগে দুর্ঘটনা ৭.০৩ শতাংশ ও প্রাণহানি ৫.৫২ শতাংশ, রংপুর বিভাগে দুর্ঘটনা ৭.৬৪ শতাংশ ও প্রাণহানি ৫.৭৭ শতাংশ এবং ময়মনসিংহ বিভাগে দুর্ঘটনা ৯.৪৮ শতাংশ ও প্রাণহানি ১১.৮০ শতাংশ।

ঢাকা বিভাগে সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে। ৮৬টি দুর্ঘটনায় নিহত ১০৩ জন। সবচেয়ে কম সিলেট বিভাগে। ২৩টি দুর্ঘটনায় নিহত ২২ জন। একক জেলা হিসেবে ময়মনসিংহ জেলায় সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে। ১৯টি দুর্ঘটনায় ৩২ জন নিহত। সবচেয়ে কম নড়াইল জেলায়। ২টি দুর্ঘটনা ঘটলেও কেউ হতাহত হয়নি।

নিউজ হান্ট/আরকে

পূর্ববর্তী নিবন্ধবিধিনিষেধ অমান্য: গ্রেপ্তারকৃতদের স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতের নির্দেশনা হাইকোর্টের
পরবর্তী নিবন্ধপটুয়াখালীতে একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড