এক লিচু ৮ টাকা, বগুড়ার বাজারে ৪ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ দাম

43

কামরুল হাসান কমল (বগুড়া) থেকে: বগুড়ার বাজারে এবছর সর্বোচ্চ দামে বিক্রি হচ্ছে লিচু। খুচরা বাজারে চায়না-৩ প্রতিটি লিচু বিক্রি হচ্ছে ৮ থেকে সাড়ে ৮ টাকা দরে। আর শতক হিসেবে ৮০০ থেকে সাড়ে ৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে ১০০ লিচু। পাইকারী বাজারে এই লিচু বিক্রি হচ্ছে ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা দরে।

আজ শনিবার (৫ জুন) এই দামে বিক্রি হলেও শুক্রবার এই লিচুর দাম ছিলো প্রকারভেদে ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা। পাইকারী ব্যবসায়ীরা বলছেন, বাজারে লিচুর দাম গত ৪ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

খুচরা লিচু ব্যবসায়ী আমজাদসহ অনেকেই জানায়, বাজারে চায়না ৩ লিচু ১০০টি বিক্রি হচ্ছে আকার ভেদে ৭০০ থেকে ৮৫০ টাকায়। এছাড়াও দেশী লিচু ৩০০, বোম্বাই ২৮০ থেকে ৩৫০, মাদ্রাজী ২৪০ থেকে ২৫০ টাকা দরে। তবে বাজারে একই লিচু একেক ব্যবসায়ীর কাছে একেক দামে বিক্রি হচ্ছে।

আর কয়েকদিন পরেই শেষ হবে মৌসুমী ফল লিচুর আমদানী। বগুড়ার বাজারে বিক্রি হচ্ছে নানান নাম ও দামের লিচু। বাজারে দাম বেশী হলেও ক্রেতারাও কিনছেন তাদের সাধ্যমত।

এদিকে, লিচুর দাম বেশি হলেও এবছর বাজারে আমের দাম কমেগেছে। বাজারে বম্বাই খিরসা ৫০, ব্যানানা ম্যাঙ্গ ৮০, লগনা ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

জেলা ফল ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ মো: জুলফিকার আনাম তুষার নিউজ হান্টকে বলেন, বাজারে আমদানী কম থাকায় গত ৪ বছরের মধ্যে এবার লিচুর দাম বেশি। গত শুক্রবার (০৪/০৬/২১) চায়না ৩ লিচু বিক্রি হয়েছে ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা (১০০ টি) দরে। শনিবার এই লিচু বিক্রি হয়েছে ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা দরে। এছাড়াও বোম্বাই ২০০ থেকে ২২০ টাকা (১০০ টি), মাদ্রাজি ২৪০ থেকে ২৫০ টাকা।

লিচুর দামের তারতম্যের কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনেকেই মৌসুমী ব্যবসায়ী আছে। যারা স্থানীয় বাগান থেকে ফল সংগ্রহ করে বিক্রি করছে। তাদের সাথে অনেক সময় পাইকারী নিয়ে আসা দামের তারতম্য হয়।

তিনি বলেন, লিচুর দাম বেশি হলেও এবছর বাজারে আমের দাম অনেক কম। বাজারে আমের আমদানীও বেশি।

নিউজ হান্ট/আরকে

পূর্ববর্তী নিবন্ধমৃত্যু বেড়েছে, শনাক্ত কমেছে
পরবর্তী নিবন্ধরোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেয়ার প্রতিশ্রুতি মিয়ানমারের ঐক্য সরকারের