এল ক্লাসিকোতে বার্সাকে হারিয়ে শীর্ষে রিয়াল

22
মৌসুমের দ্বিতীয় এল ক্লাসিকোর উত্তেজনাপূর্ণ লড়াইয়ে শেষ হাসি হেসেছে রিয়াল মাদ্রিদ। এ নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো বার্সার বিপক্ষে জয় পেল তারা। আর এই দুর্দান্ত জয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে উঠেছে জিনেদিন জিদানের দল।
আলফ্রেদো দি স্তেফানো স্টেডিয়ামে শনিবার রাতে মৌসুমের দ্বিতীয় ক্লাসিকোয় ২-১ গোলে জিতেছে রিয়াল। ম্যাচের শুরুতেই গোল করেন করিম বেনজেমা। এরপর দারুণ ফ্রি কিকে অপর গোলটি করেন টনি ক্রুস। দ্বিতীয়ার্ধে বার্সার অস্কার মিনগুয়েজ একটি গোল শোধ দেন।
ম্যাচে দশম মিনিটে প্রথম উত্তেজনা ছড়ায়। তবে লিওনেল মেসির দারুণ পাস ডি-বক্সে পেয়ে উল্লেখযোগ্য তেমন কিছু করতে পারেননি জর্দি আলবা।
এর তিন মিনিট পরেই উল্লাসে মাতে রিয়াল। একাদশে ফেরা ফেদেরিকো ভালভেরদে নিজেদের সীমানা থেকে বল পায়ে এগিয়ে ডান দিকে লুকাস ভাসকেসকে পাস দেন। স্প্যানিশ এই রাইট-ব্যাক খুঁজে নেন ছয় গজ বক্সের মুখে বেনজেমাকে। চমৎকার সাইড-ফুট ফ্লিকে কাছের পোস্ট দিয়ে বল জালে পাঠান ফরাসি ফরোয়ার্ড।
২৭তম মিনিটে ক্রুসের ফ্রি কিক ও কিছুটা সৌভাগ্যের ছোঁয়ায় ব্যবধান দ্বিগুণ করে রিয়াল। এই গোলে অবশ্য অবদান আছে দুই বার্সা খেলোয়াড়েরও। ক্রুসের করা ফ্রিকিক প্রথমে সার্জিনো ডেস্টের পিঠে লেগে দিক পাল্টে জালের দিকে যাচ্ছিল, এরপর জর্দি আলবা তাতে হেড করে আরও সহজ করে দেন গোলের পথটা।
সাত মিনিট পর স্কোরলাইন হতে পারতো ৩-০। তবে ভিনিসিউসের দারুণ পাস পেয়ে ভালভেরদের জোরালো শট দূরের পোস্টে বাধা পায়। ফিরতি বলে ভাসকেসের শট ঝাঁপিয়ে ফেরান মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেন।
নির্ধারিত ৪৫ মিনিটের শেষ দিকে কর্নার থেকেই বল প্রায় জালে জড়িয়ে ফেলেছিলেন লিওনেল মেসি। তবে গোলপোস্টে লেগে ফিরে আসলে প্রথমার্ধে ব্যবধান ২-১ করা হয়নি বার্সার।
দ্বিতীয়ার্ধে নামে মুষলধারে নামে বৃষ্টি সেই সাথে  বার্সেলোনা ঠিকই বল দখলে রেখে আক্রমণে চাপ বাড়াতে থাকে। ৬০তম মিনিটে অবশেষে গোলের দেখা পায় তারা। বাঁ দিক থেকে আলবার ক্রস দুই পায়ের ফাঁক দিয়ে ছেড়ে দেন বদলি নামা অঁতোয়ান গ্রিজমান। আর ফাঁকায় বল পেয়ে ১০ গজ দূর থেকে ব্যবধান কমান প্রথম ক্লাসিকো খেলতে নামা তরুণ ডিফেন্ডার মিনগেসা।
৬০তম মিনিটে অবশেষে গোলের দেখা পায় তারা। বাঁ দিক থেকে আলবার ক্রস দুই পায়ের ফাঁক দিয়ে ছেড়ে দেন বদলি নামা অঁতোয়ান গ্রিজমান। আর ফাঁকায় বল পেয়ে ১০ গজ দূর থেকে ব্যবধান কমান প্রথম ক্লাসিকো খেলতে নামা তরুণ ডিফেন্ডার মিনগেসা।
বাকি সময়ের প্রায় পুরোটায় চাপ ধরে রাখে বার্সেলোনা। নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে ১০ জনের দলে পরিণত হয় রিয়াল; মিনগেসাকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখেন কাসেমিরো।
যোগ করা সময়ের একেবারে শেষ মুহূর্তে সমতাসূচক গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিল বার্সেলোনা। কিন্তু ভাগ্য সহায় হয়নি; বদলি নামা তরুণ মিডফিল্ডার ইলাইশ মোরিবার শট ক্রসবারে বাধা পায়। বাজে ম্যাচ শেষের বাঁশি, উল্লাসে ফেটে পড়ে রিয়াল শিবির।
রিয়ালের এই জয়ে তিনে নেমে গেল বার্সেলোনা, ৩০ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ৬৫। ১ পয়েন্ট বেশি নিয়ে শীর্ষে শিরোপাধারীরা। এক ম্যাচ কম খেলা আতলেতিকো মাদ্রিদের পয়েন্টও রিয়ালের সমান ৬৬।
নিউজ হান্ট/ইস
পূর্ববর্তী নিবন্ধটিভিতে আজকের খেলা
পরবর্তী নিবন্ধ১১ দেশের ১৪ নেটওয়ার্ক বন্ধ করেছে ফেসবুক