করোনা ঠেকাতে কঠোর হচ্ছে সরকার

18

ক্রমেই পরিস্থিতি ভয়াবহ রুপ নিচ্ছে। দিনের পর দিন বাড়ছে মৃত্যু আর আক্রান্ত। এরিমধ্যে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১৮ দফা জরুরি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এসব নির্দেশনা পালনে কঠোর হচ্ছে সরকার।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে নতুন করে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৪২ জন। ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ছয় লাখ পাঁচ হাজার ৯৩৭ জনে। ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরও ৪৫ জন। এ নিয়ে ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮ হাজার ৯৯৪ জনে।

করোনার ছোবল থেকে জনগণকে রক্ষা করতে সচেতনতার জন্য ব্যাপক প্রচারণা চালানোর চিন্তা করছে সরকার।

এছাড়া রাত ১০টার পর অপ্রয়োজনে বাসা থেকে বের হওয়া ঠেকাতে কাজ করবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। বিদেশ ফেরতদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে নেওয়া হচ্ছে বিশেষ ব্যবস্থা।

সরকারি অফিসে থাকবে না ৫০ ভাগের বেশি জনবল, এসব সিদ্ধান্ত কার্যকর হচ্ছে শিগগিরই।

এ বিষয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, করোনা সংক্রমণ আবারও বাড়ছে। এটা যদি রোধ করতে না পারি তাহলে অনেক ক্ষতি হয়ে যাবে। তাই সবাইকে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। এ ব্যাপারে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচারের মাধ্যমে প্রত্যেক নাগরিককে সচেতন করা হবে।

তিনি আরও বলেন, কিছু কিছু ক্ষেত্রে অবশ্যই প্রশাসনিক ব্যবস্থা থাকবে। মাঠ পর্যায়েও আমরা মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করব। অপ্রয়োজনে কেউ যাতে রাত ১০টার পর বাইরে না যায়, সেটি আমরা নিশ্চিত করবো। এ বিষয়ে পুলিশ প্রশাসন কাজ করবে।

নিউজ হান্ট/ম