কর্পোরেট কর কমছে

11

আগামী অর্থবছর থেকে এক ব্যক্তির কোম্পানি আইন কার্যকর হতে পারে। এ ধরনের কোম্পানিগুলোর জন্য ২৫ শতাংশ করপোরেট কর ধার্য করা হয়েছে। আগে এই করের হার ছিল ৩২ দশমিক ৫ শতাংশ।

প্রস্তাবিত বাজেটে স্টক মার্কেটে নন-লিস্টেড ও লিস্টেড কোম্পানির করহারও কমানো হয়েছে।

একাদশ জাতীয় সংসদে চলমান ত্রয়োদশ অধিবেশনে ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে এই প্রস্তাব করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। আজ বৃহস্পতিবার (৩ জুন) দুপুর ৩টায় অধিবেশন শুরুর পর তিনি বাজেট উপস্থাপন শুরু করেন।

আগামী অর্থবছরের জন্য তিনি ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণা করেন অর্থমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘২০০৯-২০১০ অর্থ বছরে ব্যক্তি শ্রেণীর করদাতাদের জন্য করমুক্তি আয়ের সীমা ছিল ১,৬৫ হাজার টাকা, যা ক্রমান্বয়ে বাড়িয়ে ৩ লাখ টাকা হরা হয়েছে। নারী করদাতা, সিনিয়র, প্রতিবন্ধী ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য করমুক্তি এই সীমা আরও বেশি।

২০০৯-২০১০ অর্থ বছরে স্টক মার্কেটে নন-লিস্টেড কোম্পানির করহার ছিল ৩৭.৫ শতাংশ যা ক্রমান্বয়ে কমিয়ে ৩২.৫ শতাংশ আনা হয়েছে। স্টক মার্কেটে লিস্টেড কোম্পানি এবং ব্যাংক, বীমা আর্থিক প্রতিষ্ঠান করহার ২৭.৫ শতাংশ ও ৪২.৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২৫ শতাংশ ও ৩৭.৫ শতাংশ করা হয়েছে।

বাংলাদেশে বর্তমানে বেসরকারি বিনিয়োগ ও জিডিপি অনুপাত হল ২৩ শতাংশ।

গত ২০২০ সালের কর্পোরেট কর ছিল ৩৫ শতাংশ ৩২.৫০ শতাংশ। ২০২১-২০২০ সালের বাজেট এ কর্পোরেট স্টক মার্কেটে নন-লিস্টেড কোম্পানির কর কমিয়ে ৩২.৫০ শতাংশ ৩০ শতাংশ করার প্রস্তাব করছি।’

লিস্টেড কোম্পানির জন্য ২৫ শতাংশ থেকে ২২.৫ শতাংশ করা প্রস্তাব হয়েছে। এক ব্যক্তি কোম্পানির নন-লিস্টেড করহার ৩২.৫ শতাংশ ছিল যা ২৫ শতাংশ করার প্রস্তাব দিয়েছে অর্থমন্ত্রী।

নিউজ হান্ট/আরকে

পূর্ববর্তী নিবন্ধদেশে আরও ৩০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৬৮৭
পরবর্তী নিবন্ধবাজেটে শিক্ষায় বরাদ্দ বাড়ছে ৮.৬৭%