কলকাতায় কঙ্গনার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের

14

পশ্চিমবঙ্গে হিংসা ও অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করছেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। বিজেপিকে সমর্থন জানাতে গিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মানুষের মধ্যে বিভেদ তৈরির চেষ্টা করছেন তিনি- এমন অভিযোগ তুলে কলকাতা পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন হাইকোর্টের আইনজীবী সুমিত চৌধুরী। ইমেইলের মাধ্যমে কঙ্গনার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি।

ঘটনার সূত্রপাত কঙ্গনার কয়েকটি টুইট নিয়ে। পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর টুইটে বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গাদের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সবচেয়ে বড় শক্তি হিসেবে ব্যাখ্যা করেছিলেন বলিউডের আলোচিত এই অভিনেত্রী। শুধু তাই নয়, বাংলাকে কাশ্মীরের সঙ্গেও তুলনা করেন কঙ্গনা।

টুইটারে কঙ্গনা লেখেন, ‘বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সবচেয়ে বড় শক্তি…। যা ট্রেন্ড দেখছি তাতে বাংলায় আর হিন্দুরা মেজরিটিতে নেই এবং তথ্য অনুযায়ী গোটা ভারতবর্ষের তুলনায় বাংলার মুসলিমরা সবচেয়ে গরীব আর বঞ্চিত। ভাল, আরেকটা কাশ্মীর তৈরি হচ্ছে।’

নিজেকে বরাবর ‘দেশভক্ত’ হিসেবে দাবি করা কঙ্গনার এই টুইটের পরই বিতর্কের ঝড় উঠতে শুরু করে। সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিকবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন তিনি। দিল্লির কৃষক আন্দোলনের সময়ও মোদির পাশে দাঁড়িয়ে ক্ষুব্ধ কৃষকদের একহাত নেন। এবার মমতার বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন তিনি। অভিযোগ, এই অতিরিক্ত ‘মোদি প্রীতি’ দেখাতে গিয়েই হিংসা ছড়াচ্ছেন কঙ্গনা। যা বাংলার মানুষ মেনে নেবে না বলে দাবি আইনজীবী সুমিত চৌধুরীর।

সেই কারণেই অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর।

এর আগে শিবসেনা শাসিত মহারাষ্ট্রের মুম্বইকে কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন তিনি। এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জয়ে আরেকটা কাশ্মীর তৈরি হচ্ছে বাংলায়, এমন মন্তব্য করে বিপাকে কঙ্গনা।

নিউজ হান্ট/কেএইচ

পূর্ববর্তী নিবন্ধবাজার থেকে আনা ফলমূল-শাকসবজি জীবাণুমুক্ত করবেন যেভাবে
পরবর্তী নিবন্ধমাস্ক থেকে হতে পারে ‘মাস্কনে’, সমাধান ঘরেই