খালেদা জিয়ার বিদেশ গমন সরকারের সদিচ্ছার ওপর: ফখরুল

8

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালের সিসিইউতে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বিদেশ যেতে পারবেন কিনা তা নির্ভর করছে মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্ত ও সরকারের সদিচ্ছার ওপর।

আজ বুধবার (৫ মে) দলের চেয়ারপারসনের বিদেশ যাত্রা নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার (৪ মে) মির্জা ফখরুল ইসলাম গণমাধ্যকে জানিয়েছেন, খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার জন্য কোনও আবেদন করা হয়নি।

গত সোমবার (৩ মে) গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

ওইদিন থেকেই খালেদা জিয়ার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় তাকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে সিসিইউতে স্থানান্তর করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনা শনাক্ত হয়। এরপর থেকে গুলশানের বাসা ‘ফিরোজায়’ তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক এফএম সিদ্দিকীরে নেতৃত্বে তার চিকিৎসা শুরু হয়। করোনা আক্রান্তের ১৪ দিন অতিক্রান্ত হওয়ার পরে খালেদা জিয়ার করোনা টেস্ট করা হয়েছিল কিন্তু ফলাফল পজিটিভ আসে।

৭৬ বছর বয়সী সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া দুর্নীতির দুই মামলায় দণ্ডিত। দণ্ড নিয়ে তিন বছর আগে তাকে কারাগারে যেতে হয়।

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরুর পর পরিবারের আবেদনে সরকার গত বছরের ২৫ মার্চ ‘মানবিক বিবেচনায় শর্তসাপেক্ষে তাকে সাময়িক মুক্তি দেয়। তখন থেকে তিনি গুলশানের নিজের বাসা ফিরোজায় থেকে ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধায়নে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

নিউজ হান্ট/এনএইচ

পূর্ববর্তী নিবন্ধফের আগুন লেগেছে সুন্দরবনে
পরবর্তী নিবন্ধএসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা পেছাচ্ছে?