চাঁদাবাজির মামলা: রিমান্ড শেষে কারাগারে আউয়াল

18

পল্লবী থানায় দায়ের করা ২০ লাখ টাকা চাঁদাবাজির মামলায় লক্ষ্মীপুর-১ আসনের সাবেক এমপি এমএ আউয়ালকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। শনিবার (৫ জুন) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাসের আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। আদালতের সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন (জিআর) শাখা থেকে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এ দিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পল্লবী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অনয় কুমার আসামিকে রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করেন।এরপর মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে গত ১৬ মে রাজধানীর পল্লবীতে সাহিনুদ্দিন (৩৪) নামের এক ব্যবসায়ীকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ সময় তার ছয় বছর বয়সী ছেলে মাশরাফি গেটের বাইরে ছিল। পরে এ হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে ইসলামী গণতান্ত্রিক পার্টির চেয়ারম্যান, তরিকত ফেডারেশনের সাবেক মহাসচিব এমএ আউয়ালের নাম উঠে আসে। নিহতের মা আকলিমা বেগম পল্লবী থানায় সাবেক এমপি আউয়ালকে প্রধানসহ মোট ২০ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। আকলিমা বেগমের দাবি, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সাহিনুদ্দিনকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

গত মাসেই ২০ লাখ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগে এমপি আউয়ালের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা দায়ের করা হয়। এরপর তাকে চাঁদাবাজির ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে ৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছিলেন তদন্ত কর্মকর্তা। শুনানি শেষে বিচারক ওই মামলায় আউয়ালের দুই দিনের রিমান্ডের রেখে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন। সেই রিমান্ড শেষে সাবেক এই সংসদ সদস্যকে কারাগারে পাঠালো আদালত।

নিউজ হান্ট/আরকে

পূর্ববর্তী নিবন্ধআত্রাই নদীতে অবৈধ ড্রেজার, হুমকির মুখে পার্শ্ববর্তী এলাকা
পরবর্তী নিবন্ধসাতক্ষীরায় লকডাউনের প্রথম দিনে কঠোর প্রশাসন