চিতলমারীতে পৈত্রিক জমিতে ঘর বাঁধতে কৃষক লীগ নেতার বাঁধা

10

চিতলমারী (বাগেরহাট) থেকে বিভাষ দাস: বাগেরহাটের চিতলমারীতে বাংলাদেশ কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ভাগো দত্তের হাত থেকে পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষায় সুলতানা মল্লিক নামের এক নারী বিপাকে পড়েছেন। সুলতানা মল্লিক চিতলমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মৃত মল্লিক সিরাজুল হকের মেয়ে।

সুলতানা মল্লিক জানান, আমার পিতার সাথে সাবেক মন্ত্রী এ,কে ফায়জুল হকের সুসম্পর্ক ছিল। সেই সুবাদে এ,কে ফায়জুল হক ডি,পি ৩ খতিয়ানের সাবেক ২১১, ২১২ হাল ৩২০, সাবেক ২১৬ হাল ৩২৩, সাবেক ৪৯ হাল ১০ নং দাগে সর্বমোট ২৬ শতক জায়গা ২৩-০১-১৯৮৫ তারিখে ২২২১ নং দলিলে মল্লিক সিরাজুল হকের কাছে হস্তান্তর করেন। বাংলা ১৪২৬ সাল এবং ইংরেজী ১৫/৯/১৯ তারিখের ৩/২ নং এস এ খতিয়ানে জমির খাজনা পরিশোধ আছে। যার খাজনার রশিদ নং-৭২০০১৪।

তিনি অভিযোগ করেন, পিতার ক্রয়কৃত ওই জমিতে ২৩ মার্চ ঘর তুলতে গেলে সন্ত্রাসী ভগো দত্ত দলবল নিয়ে বাঁধা দেয় এবং মারপিট করতে উদ্যত হয়ে অনৈতিক অর্থ দাবী করে। ভগো দত্ত বাংলাদেশ কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং তার ভাইপো আনন্দ লাল দত্ত উপজেলা ছাত্র লীগের সাবেক সভাপতি হওয়ার কারণে তার হাতে অনেক ক্ষমতা রয়েছে। তারা ওই ক্ষমতার অপব্যবহার করে।

এ ব্যাপারে ভগো দত্তের স্ত্রীর সাথে মুঠোফোনে আলাপ হলে তিনি জানান, ওই জমি সুলতানা মল্লিকের নয়। এ জমিতে আমাদের স্বার্থ জড়িত আছে।

নিউজ হান্ট/কেএইচ