জেরুজালেমে আল জাজিরার নারী সাংবাদিক গ্রেপ্তার, কয়েক ঘণ্টা পর মুক্ত

8

আল জাজিরা অ্যারাবিকের সাংবাদিক গেভারা বুদেইরিকে দখলকৃত পূর্ব জেরুজালেমের শেখ জাররাহ এলাকা থেকে শনিবার গ্রেফতার করে ইসরায়েলি পুলিশ। গ্রেফতারের কয়েক ঘণ্টা পর তাকে পুলিশি হেফাজত থেকে মুক্তি দেওয়া হয়।

আল জাজিরার এই সাংবাদিককে গ্রেফতারের সময় ইসরায়েলি পুলিশ তার আল জাজিরা ক্যামেরাম্যান নাবিল মাজাওয়ের কাছে থাকা সরঞ্জামগুলো ভেঙে ফেলে। বুদেইরিকে গ্রেফতারের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে অধিকারকর্মীরা।

মুক্তি পাওয়ার পর বুদেইরি বলেন, তারা চতুর্দিক থেকে আসছিল। আমি জানি না তারা কেন আমাকে দেয়ালের সঙ্গে চেপে ধরেছে। তারা আমায় লাগাতার লাথি মারছিল।

ইসরায়েলি দখলের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনিদের ৫৪তম নাকসা দিবসের সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন বুদেইরি। ১৯৬৭ সালে ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি হামলার স্মরণে এ দিবস পালিত হয়। এছাড়া শেখ জাররাহ এলাকায়ও ইহুদি বসতির বিরুদ্ধে আন্দোলন চলছিল।

বুদেইরি ২০০০ সাল থেকে আল জাজিরায় কর্মরত। গ্রেফতার হওয়ার সময় ‘প্রেস’ উল্লেখ করা জ্যাকেট পরিহিত ছিলেন ও ইসরায়েলি সরকারি প্রেস অফিসের (জিপিও) কার্ড ছিল।

এসব থাকার পরেও ‘তার সঙ্গে সন্ত্রাসীদের মতো’ আচরণ করা হয়েছে উল্লেখ করে বুদেইরি বলেন, পুলিশ তার বিরুদ্ধে একজন নারী সৈন্যকে লাথি মারার অভিযোগ এনেছিল।

এমন অভিযোগ তিনি দৃঢ়ভাবে অস্বীকার করেছেন। তাকে ১৫ দিন শেখ জাররাহ না যাওয়ার শর্তে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

আল জাজিরা মিডিয়া নেটওয়ার্কের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক মোস্তফা সওগ এই গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, সব ধরনের আন্তর্জাতিক কনভেনশন লঙ্ঘন করে প্রতিনিয়ত আমাদের সাংবাদিকদের টার্গেট করা হচ্ছে। গেভারা বুদেইরি ও নাবিল মাজাওয়িকে হামলার মাধ্যমে ইসরায়েলি দখলদার বাহিনী সাংবাদিকদের মৌলিক মানবাধিকারকে পুরোপুরি অবজ্ঞা করেছে।

আল জাজিরার হুদা আবদেল হামিদ বলেন, বুদেইরিকে গ্রেফতারের মতো কিছুই ঘটেনি। তবুও পুলিশ তার ওপর চড়াও হয়েছে। তাকে ক্রমাগত ধাক্কা দেওয়া হাচ্ছিল। তিনি তার প্রেস কার্ড দেখাতে চাচ্ছিলেন। ক্যামেরাম্যান যখন তার কাছে যাচ্ছিল তখন ক্যামেরাও ভেঙে ফেলা হয়।

নিউজ হান্ট/ম

পূর্ববর্তী নিবন্ধইপিএলের মৌসুম সেরা খেলোয়াড় দিয়াজ, কোচ গার্দিওলা
পরবর্তী নিবন্ধফেলনা প্লাস্টিক থেকে বাটার জুতা!