টাকা পাচার নিয়ে অর্থমন্ত্রীর মনেও অনেক কষ্ট

2

বিদেশে টাকা পাচার নিয়ে সাধারণ মানুষের মতোই কষ্টে থাকেন বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। আজ বুধবার (১৬ জুন) সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রীসভা কমিটির সভা শেষে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘মুদ্রা পাচার নিয়ে আপনাদের যেমন কষ্ট, আমারও মনে অনেক কষ্ট।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগামী ছয় মাসে সংশোধিত ও নতুন মিলে ১৫টি আইন পাশ হবে। সেগুলো কার্যকর হলে মুদ্রা পাচার কমে আসবে।’

‘তবে যাদের ইতোমধ্যে চিহ্নিত করা গেছে, তাদের জেলে নেওয়া হয়েছে। তাদের বিচারে কাজও চলছে,’ যোগ করেন তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘কোনো বিল পাশের সময় হ্যাঁ বা না, যেকোনো একটা বলতে হয়। এটা নিয়ম। কিন্তু, বিলের ওপর কথা বলতে দেওয়া হয় না, এটা ঠিক নয়। কথা বলার সুযোগ থাকে এবং কথা বলেন।’

এর আগে সংসদে বিরোধী দলের সংসদ সদস্যদের অর্থপাচার সংক্রান্ত সমালোচনার জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘নামগুলো আমাদের দেন। এ কাজটি করলে আমাদের জন্য সহজ হবে।’

তখন অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, ‘দেশের মানুষের কষ্টে অর্জিত টাকা বিদেশে চলে যাবে, আপনাদের যেমন লাগে, আমারও লাগে। আমি অনিয়ম, বিশৃঙ্খলার বিরুদ্ধে। আমরা সবাই চাই এগুলো বন্ধ করতে হবে। বন্ধ হচ্ছে। আগের মতো অবস্থা নেই। আগে সিমেন্টের নাম করে বালি আসতো। একটার নাম করে আরেকটা আসতো। আন্ডার ইনভয়েসিং, ওভার ইনভয়েসিং আগের মতো হয় না। একদম বন্ধ হয়ে গেছে বলবো না। পত্রপত্রিকায় দেখতে পাই না।’

বিদেশে অর্থ পাচারের অভিযোগের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘কারা বিদেশে টাকা নিয়ে যায়, তা আমার জানা নেই। লিস্ট আমার কাছে নেই।’

বিরোধী সংসদ সদস্যদের উদ্দেশে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘নামগুলো আমাদের দেন। কাজটি করলে আমাদের জন্য সহজ হবে। এখনও অনেকেই জেলে আছেন। বিচার হচ্ছে। আগে যেমন ঢালাওভাবে চলে যেত, এখন তেমন নেই।’

নিউজ হান্ট/আরকে

পূর্ববর্তী নিবন্ধশিশু ডে-কেয়ার সেন্টার বিল পাস, থাকছে জেল-জরিমানার বিধান
পরবর্তী নিবন্ধআবারো বাড়তে পারে বিধিনিষেধের মেয়াদ