শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১

তালেবানকে কথা দিয়েছে চীন

আরও পড়ুন

চীন আফগানিস্তানের তালেবান সরকারকে আশ্বস্ত করেছে যে, বেইজিং তার সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখণ্ডতাকে সম্মান করে এবং তার অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে না।

গতকাল মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) কাবুলে ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকির সঙ্গে এক বৈঠকে আফগানিস্তানে চীনের রাষ্ট্রদূত ওয়াং ইউ বলেন, বেইজিং আশা করে, আফগানিস্তানে একটি ‘উন্মুক্ত এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক’ রাজনৈতিক কাঠামো প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে।

চীনের কাছ থেকে এই আশ্বাস সেই দিনই আসে যেদিন বেইজিং জানায়, তারা আফগানিস্তানকে করোনা ভ্যাকসিনের ৩ মিলিয়ন ডোজ অনুদান দেবে এবং সেটা প্রথম ব্যাচের সঙ্গে ও আরো জরুরি ভিত্তিতে।

এই ভ্যাকসিন ৩১ মিলিয়ন ডলার মূল্যের খাদ্য, শীতল আবহাওয়ায় সরঞ্জাম সরবরাহ, ভ্যাকসিন এবং ওষুধের অংশ হবে, যা বেইজিং এই মাসের শুরুতে কাবুলকে সরবরাহ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল।

কাবুলে ওয়াং ই আমির খান মুত্তাকিকে বলেছেন: চীন আফগানিস্তানের সার্বভৌমত্ব, স্বাধীনতা এবং আঞ্চলিক অখণ্ডতাকে সম্মান করে, আফগানিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে না এবং আফগান জনগণকে স্বাধীনভাবে তাদের জাতীয় অবস্থার অনুকূল একটি উন্নয়ন পথ বেছে নিতে সহায়তা করবে।

গত মাসে তালেবানরা ক্ষমতায় আসার পর কাবুলে এটি ছিল চীন-আফগানিস্তান সর্বোচ্চ পর্যাযের দ্বিতীয় বৈঠক ছিল।

এর আগে আগস্টের শেষের দিকে, তালেবান রাজনৈতিক উপ-প্রধান আবদুল সালাম হানাফী কাবুলে রাষ্ট্রদূত ওয়াং ইউ-এর সাথে দেখা করেন।

আমির খান মুত্তাকির সঙ্গে মঙ্গলবারের বৈঠকে ওয়াং ই আফগানিস্তানকে চীনা নাগরিক, চীনা অর্থায়িত উদ্যোগ এবং আফগানিস্তানে দূতাবাসের নিরাপত্তা রক্ষার প্রচেষ্টার জন্য ধন্যবাদ জানান।

চীনের সরকারী গণমাধ্যমে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুসারে, আমির খান মুত্তাকি চীনকে তার সমর্থন ও সহায়তার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, চীন আফগানিস্তানের বন্ধুপ্রতিম প্রতিবেশী এবং আফগানিস্তানের প্রতি তার নীতি সর্বদা ন্যায্য এবং বাস্তব।

চীন এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহায়তার বিষয়ে আমির খান মুত্তাকি বলেন, আফগানিস্তান সন্ত্রাসবাদকে আরও ভালভাবে মোকাবেলা করার জন্য তার শাসন ক্ষমতা ক্রমাগত উন্নত করার আশা করছে।

তিনি আরও বলেন, আফগানিস্তান কোনো বাহিনীকে আফগান ভূখণ্ড ব্যবহার করতে দেবে না যা চীন এবং অন্যান্য দেশের স্বার্থ বিপন্ন কর।

জেনেভায়, জাতিসংঘে চীনা মিশনের প্রধান চেন জু বলেন, চীন প্রথম ব্যাচে আফগানিস্তানকে তিন মিলিয়ন ডোজ করোনা ভ্যাকসিন উপহার দেবে, যাতে আরও জরুরি সরবরাহও থাকবে।

চেন জু বলেন, চীন জরুরীভাবে শীতকালীন খাদ্য, উপকরণ, করোনা ভ্যাকসিন এবং আফগানিস্তানকে ২০০ মিলিয়ন ইউয়ান (৩১ মিলিয়ন ডলার) মূল্যের ওষুধ সরবরাহ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

চীন জু আফগানিস্তানের মানবিক পরিস্থিতি সম্পর্কিত উচ্চ পর্যায়ের মন্ত্রিসভা বৈঠকে বলেন: চীন আফগান জনগণের ইচ্ছা এবং চাহিদার প্রতি শ্রদ্ধা অব্যাহত রাখবে এবং আফগানিস্তানের শান্তিপূর্ণ পুনর্গঠন এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নে তার সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে।

চেন জু আরও বলেছেন, চীন আফগানিস্তানে মানবিক সংকট দূর করতে এবং আফগানিস্তানকে একটি মসৃণ উত্তরণে সহায়তা করতে ও প্রথমদিকে শান্তিপূর্ণ উন্নয়নের পথে যাত্রা করতে জাতিসংঘকে বৃহত্তর ভূমিকা পালন করতে সহায়তা করবে।

তিনি বলেন, আফগানিস্তানের জন্য জাতিসংঘের মানবিক সহায়তার জন্য চীন স্বাগত জানায়, আফগানিস্তান ইস্যু সম্পর্কিত অন্যান্য বহুপাক্ষিক ব্যবস্থার সঙ্গে সহযোগিতা জোরদার করতে জাতিসংঘকে সমর্থন করে এবং একে অপরের পরিপূরক হয়ে সমন্বয় গড়ে তুলবে।

তিনি বৈঠকে বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আফগানিস্তানে সহায়তা বাড়াতে হবে।

চেন জু বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্ররা আফগান জনগণকে অর্থনৈতিক, জীবিকা ও মানবিক সহায়তা প্রদানে অধিক বাধ্য।

সূত্র: সিনহুয়া, গ্লোবাল টাইস, রয়টার্স, আল-জাজিরা, আনাদোলু এজেন্সি

নিউজ হান্ট/আরকে

সর্বশেষ