নওগাঁয় কঠোর বিধিনিষেধ কার্যকরে তৎপর প্রশাসন

3

নওগাঁ থেকে কামাল উদ্দিন টগর: নওগাঁয় করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপের শুক্রবার দ্বিতীয় দিন জেলা সদর ও নিয়ামতপুর উপজেলায় প্রশাসনিক তৎপরতা আরও বাড়ানো হয়েছে।

প্রথম দিনের অভিজ্ঞতার আলোকে যানবাহন নিয়ন্ত্রণে পুলিশ এবং জেলা প্রশাসনের আরও দৃঢ় ভূমিকা লক্ষ্য করা গেছে। পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া বলেছেন, শহরের সবগুলো রাস্তায় এবং গুরুত্বপূর্ণ মোড় সমূহে পুলিশের পাহারা চৌকি সম্প্রসারিত করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক মোঃ হারুন-অর-রশীদ জানিয়েছেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত টহলরত রয়েছে। সরকারের ইচ্ছার প্রতিফলন হিসেবে যে কোন মূল্যে করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।

এদিকে বুধবার সন্ধ্যা থেকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় নওগাঁ জেলার ধামইরহাট উপজেলায় নতুন করে আরও এক ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। জেলায় সর্বমোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪৪ জনে।

এ সময় জেলায় নতুন করে আরও ২৪ ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে নওগাঁ সদর উপজেলায় ৩ জন, রানীনগর উপজেলায় ১ জন, মহাদেবপুর উপজেলায় ১ জন, ধামইরহাট উপজেলায় ১ জন, নিয়ামতপুর উপজেলায় ১৪ জন, সাপাহার উপজেলায় ৩ জন এবং পোরশা উপজেলায় ১ জন। এ নিয়ে জেলায় ভাইরাসে মোট আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়ালো ২৩৬৩ জন।

এ সময় নতুন করে সুস্থ হয়েছেন ১২ জন এবং এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ২০৪৭ জন। বর্তমানে জেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রয়েছেন ৩১৬ ব্যক্তি।

গত চব্বিশ ঘণ্টায় জেলায় কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে ৮১ ব্যক্তিকে। এ পর্যন্ত সর্বমোট কোয়ারেন্টাইনে নেয়া ব্যক্তির সংখ্যা ২২ হাজার ৫শ ৩ জন। চব্বিশ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে ৫১ জন্যকে। এ পর্যন্ত সর্বমোট ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে ২১ হাজার ৪শ ৫০ ব্যক্তিকে। বর্তমানে কোয়ারেনটাইনে রয়েছেন ১ হাজার ৫৩ জন। বর্তমানে জেলায় আইসোলেশনে রয়েছেন ১৭ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১১ জন।

নিউজ হান্ট/কেএইচ

পূর্ববর্তী নিবন্ধশিগগিরই চালু হচ্ছে পায়রা সেতু, খুলবে দক্ষিণাঞ্চলের অর্থনীতির দ্বার
পরবর্তী নিবন্ধনাটোরে ভেকুর আঘাতে শিশু নিহত