আর্থিক ক্ষতির মুখে বন্ধ হচ্ছে বিখ্যাত পাঁচতারকা হোটেল

7

কর্মীদের বেতন দেওয়ার জন্য পর্যাপ্ত আর্থিক সামর্থ্য নেই ভারতের বিখ্যাত পাঁচতারকা হোটেল হায়াত রিজেন্সির। ফলে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হতে যাচ্ছে বিখ্যাত এই হোটেলটি। মূলত প্রবল আর্থিক ক্ষতিকেই এর জন্য দায়ী করেছে কর্তৃপক্ষ।

সোমবার (৭ জুন) দেওয়া এক বিবৃতিতে এমনটাই জানিয়েছে মুম্বাইয়ের এই জনপ্রিয় পাঁচতারকা হোটেল কর্তৃপক্ষ।

ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য মহারাষ্ট্রের রাজধানী মুম্বাইয়ের ছত্রপতি শিবাজী মহারাজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত হায়াত রিজেন্সির মালিক এশিয়া হোটেলস।

সংস্থার জেনারেল ম্যানেজার হরদীপ মারওয়া জানিয়েছেন, এশিয়া হোটেলসের পক্ষ থেকে আর্থিক কোনো সাহায্য পাঠানো হচ্ছে না। ফলে এভাবে দিনের পর দিন ব্যবসা চালানো সম্ভব নয়।

তিনি আরও বলেন, আমাদের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীর বেতন হয় এশিয়া হোটেলস থেকে। সেখান থেকে বেতন দেওয়ার জন্য কোনো অর্থ সাহায্য আসছে না। ফলে কর্মীরা দীর্ঘদিন বেতন পাচ্ছেন না। আর তাই আমরা হোটেলের সকল সেবা ও কর্মকাণ্ড বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালে করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর থেকেই সারা বিশ্বে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পর্যটন ও হোটেল ব্যবসা। গত বছর প্রথম দফা লকডাউনের ধাক্কা সামলে উঠতে না উঠতেই চলতি বছর ভারতে আছড়ে পড়ে দ্বিতীয় ঢেউ।

আর করোনার এই দ্বিতীয় পর্বের ধাক্কাতেই মুম্বাইতে হোটেল ব্যবসা কার্যত ধসে পড়ে। করোনার হটস্পটে পরিণত হওয়া মুম্বাইতে ব্যবসা চালানো প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়ছে বলেই জানাচ্ছেন মালিকরা।

সোমবার (৭ জুন) ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় মুম্বাইতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭২৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৮ জনের। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে এখনও পর্যন্ত ভারতের মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে মুম্বাইতে।

পূর্ববর্তী নিবন্ধসাগরে সৃষ্টি হচ্ছে লঘুচাপ, বাড়বে বৃষ্টি
পরবর্তী নিবন্ধরাজশাহী মেডিকেলের করোনা ইউনিটে আরো ৮ মৃত্যু