প্রশাসনের আশ্বাস: থামলো লকডাউনবিরোধী বিক্ষোভ

35

লকডাউনে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার দাবিতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকার দোকান মালিক, ব্যবসায়ী ও শ্রমিকরা। রোববার (৪ মার্চ) দুপুর ৩টা থেকে বিকেল পৌনে ৫টা পর্যন্ত বিক্ষোভ করেন তারা। পরে পুলিশ প্রশাসনের আশ্বাসে সড়ক থেকে উঠে যান দোকান মালিক ও শ্রমিকরা।

তারা জানান, করোনা মহামারির শুরু হ‌ওয়ার পর থেকে সরকার ঘোষিত লকডাউনে কয়েক দফায় দোকান বন্ধ রাখতে হয়েছে। এছাড়া লকডাউনের বাইরে দোকান খোলা থাকলেও ক্রেতা সমাগম কম হ‌ওয়ায় বেচা বিক্রিও কম হয়েছে। এতে ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন।

তারা আরও বলেন, ভর্তি পরীক্ষা থেকে শুরু করে সবকিছু চললেও কেবল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বারবার বন্ধ রাখা হয়। বইমেলা খোলা থাকবে অথচ তাদের দোকানপাট বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়া হয়েছে, এ কারণে সড়কে নেমেছেন।

চাঁদনী চক মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম বলেন, গেট এলাকায় গাউছিয়া, চাঁদনী চক ও নীলক্ষেতসহ অন্যান্য মার্কেট মিলিয়ে আমাদের এখানে পাঁচ হাজারের বেশি দোকানপাট রয়েছে। আমরা চাই এই দোকানপাট লকডাউন খোলা থাকুক।

সকাল নয়টা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত হলেও সরকার যেন আমাদের দোকান খোলা রাখার ঘোষণা দেয়। নয়তো ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদের না খেয়ে থাকার পাশাপাশি পথে বসতে হবে। তাই আমাদের কথা বিবেচনায় নিয়ে যেন দোকানপাট খোলা রাখার ঘোষণা দেয়া হয়।

একই দাবিতে বসুন্ধরা শপিং মলের ব্যবসায়ী ও কর্মচারীরা বিকেল চারটার দিকে মলের সামনের সড়কে বিক্ষোভ–মিছিল করে।

এর আগে শনিবার রোজা ও ঈদ সামনে রেখে লকডাউনের এক সপ্তাহ ৪ ঘণ্টার জন্য দোকান খোলা রাখার দাবি জানায় বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি।

নিউজ হান্ট/আরকে