ভারতে করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যু বেড়েছে

32

করোনায় দিনদিনই নাজুক হচ্ছে ভারতের পরিস্থিতি। দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেসামাল হয়ে পড়েছে দেশটি। ভেঙ্গে পড়েছে চিকিৎসা ব্যবস্থা। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন  ৪৩ হাজার ৭৩৩ জন। এসময় ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৯৩০ জনের।

আজ বুধবার (৭ জুলাই) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটার থেকে এ তথ্য জানা যায়।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত বুলেটিনের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়,  মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে  ৩ কোটি ৬ লাখ ৬৩ হাজার ৬৬৫ জনে। এছাড়া দেশটিতে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৪ লাখ ৪ হাজার ২১১ জন।

এদিকে সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ভারতে দৈনিক আক্রান্তের তুলনায় বেশি সংখ্যক মানুষ সুস্থ হয়েছেন। ফলে দেশটিতে কমেছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা। গত একদিনে ভারতে সুস্থ হয়েছেন ৪৭ হাজার ২৪০ জন। অন্যদিকে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৪৪ হাজার।

একসময় দেশটিতে ৩৭ লাখের বেশি সক্রিয় রোগী থাকলেও কমতে কমতে সেই সংখ্যা নেমে এসেছে প্রায় সাড়ে ৪ লাখে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে সক্রিয় রোগী কমেছে প্রায় ৫ হাজার। দেশটিতে এখন মোট সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৪ লাখ ৫৯ হাজার ৯২০ জন।

নতুন করে সংক্রমণের সংখ্যা বাড়ায় দৈনিক হারও আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। দেশটিতে এখন দৈনিক সংক্রমণের হার ২ দশমিক ২৯ শতাংশ। মঙ্গলবার এই হার ছিল ২ দশমিক ১১ শতাংশ।

প্রতিদিন যে সংখ্যক কোভিড টেস্ট করা হয়, তার মধ্যে যত শতাংশের রিপোর্ট পজিটিভ আসে, তাকেই ‘পজিটিভিটি রেট’ বা সংক্রমণের হার বলা হয়। ভারতে এখন সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ১৮ শতাংশ।

এদিকে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ (আইসিএমআর) জানিয়েছে, জুলাই মাসের ৬ তারিখ পর্যন্ত ভারতে ৪২ কোটি ৩৩ লাখ ৩২ হাজার ৯৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৯ লাখ ৭ হাজার ২১৬ জনের।

এছাড়া ভারতে এখন পর্যন্ত টিকা পেয়েছেন ৩৬ কোটি ১৩ লাখ মানুষ। চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারি দেশটিতে একযোগে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়।

এদিকে ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৭ হাজার ৯৩০ জন। এছাড়া, একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ২৪ হাজার ৫৫৬ জন।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৩ কোটি ৪৬ লাখ ১৮ হাজার ৯৭৩ জন করোনায় আক্রান্ত এবং ৬ লাখ ২১ হাজার ৬০৩ জন মারা গেছেন। লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৭৮৭ জন এবং নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৬২ হাজার ৫০৪ জন। অপরদিকে মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এক কোটি ৮৮ লাখ ৫৫ হাজার ১৫ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ২৭ হাজার ১৬ জনের।

করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যার তালিকায় দেশটির অবস্থান তৃতীয়।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।

নিউজ হান্ট/এনএইচ

পূর্ববর্তী নিবন্ধকরোনাভাইরাস: সামনের ১৪ দিন হতে পারে আরো ভয়ংকর
পরবর্তী নিবন্ধমমেকে ২৪ ঘণ্টায় ৭ জনের মৃত্যু