মামুনুলের অনৈতিক কাজ ঢাকতেই তাণ্ডব হেফাজতের: হানিফ

12

হেফাজত নেতা মামুনুল হক অপকর্ম করে জনতার হাতে ধরা পড়েছেন। তার অপকর্ম ঢাকতেই হেফাজত সারা দেশে তাণ্ডব চালাচ্ছে। এমন মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ।

আজ বুধবার (৭ এপ্রিল) নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে রয়্যাল রিসোর্ট পরিদর্শন করে এ কথা বলেন তিনি।

হানিফ বলেন, হামলাকারীদের ঠিকানা বের করে শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। যেখানেই সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী হেফাজত ইসলাম ধর্মের নামে অরাজকতা সৃষ্টি করার অপচেষ্টা করবে সেখানেই প্রতিরোধ করতে হবে। যারা এই হামলার সঙ্গে জড়িত তাদের তালিকা করতে হবে। এদের বিরুদ্ধে সরকারিভাবে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। যেখানেই হেফাজত সেখানেই প্রতিরোধ গড়ে তুলতে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, একজন ধর্ম ব্যবসায়ীকে কেন্দ্র করে যে ঘটনা ঘটেছে। তাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের অফিস ভাঙচুর করা হয়েছে, যুবলীগ-ছাত্রলীগের নেতার বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে, সাধারণ মানুষের ওপর অত্যাচার নির্যাতন করা হয়েছে। এই বিষয় পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দিতে চাই ধর্ম ব্যবসায়ী মামুনুল তার স্ত্রীর নাম দিয়ে এখানে এসেছিলেন এবং অনৈতিক কাজে জড়িত ছিলেন বলেই সাধারণ মানুষ তাকে ধরেছে। এই বিষয়টি কেন্দ্র করে তথাকথিত ধর্ম ব্যবসায়ীরা যে ভাঙচুর ও নির্যাতন করেছে তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি।

এর আগে, সকালে আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল সেখানে পৌঁছান। তারা রয়্যাল রিসোর্ট ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের এক নেতার বাড়িতে যান। হানিফ ছাড়াও প্রতিনিধি দলে ছিলেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

গত ৩রা এপ্রিল হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে ওই রিসোর্ট থেকে নারীসহ আটক করে স্থানীয় জনতা। পরে হেফাজতের নেতাকর্মীরা রয়্যাল রিসোর্টসহ বিভিন্ন স্থানে তাণ্ডব চালায়। মামুনুল দাবি করেন, ওই নারী তার দ্বিতীয় স্ত্রী। যদিও তার বিয়ে নিয়ে কিছু জানে না মামুনুলের পরিবার।

নিউজ হান্ট/আরকে