মিয়ানমার নিয়ে রাশিয়ার আশঙ্কা

23

মিয়ানমারের সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার বিরোধী রাশিয়া। আজ মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) তারা এ কথা জানিয়ে দিয়ে সতর্কতা দিয়েছে যে, জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হলে তাতে মিয়ানমারে বড় আকারে গৃহযুদ্ধ ছড়িয়ে পড়তে পারে।

বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্স রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে এ কথা জানিয়েছে।

ওই মুখপাত্র বলেছেন, মিয়ানমারের বর্তমান কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে চলমান হুমকি এবং নিষেধাজ্ঞা দেওয়াসহ যে চাপ প্রয়োগের কথা বলা হচ্ছে তার কোনো ভবিষ্যত নেই এবং তা হতে পারে চরমমাত্রায় বিপজ্জনক।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানাচ্ছে, ওই মুখপাত্র এও বলেছেন যে, মিয়ানমারের বিরুদ্ধে এমন নীতি গ্রহণ করা হলে সেখানে পূর্ণমাত্রায় গৃহযুদ্ধ শুরু হয়ে যেতে পারে।

নির্বাচিত বেসামরিক নেত্রী অং সান সুচিকে ক্ষমতা থেকে উৎখাত করে ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক জান্তা ক্ষমতার চেয়ারে বসে। এর মধ্যদিয়ে সেখানে গণতন্ত্রের যে সূচনা হয়েছিল তা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে।

স্থানীয় নজরদারিকারী একটি গ্রুপের মতে, অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে এ পর্যন্ত কমপক্ষে ৫৫৭ জনকে হত্যা করা হয়েছে।

ফলে সামরিক জান্তার ওপর বড় রকমের আন্তর্জাতিক চাপ সৃষ্টির দাবি উঠেছে সর্বমহল থেকে। এর মধ্যে সামরিক বাহিনীর ব্যবসায়িক স্বার্থকে আঘাত করে চাপ দেওয়ার দাবি বেশি জোরালো। এর মধ্যে রয়েছে লোভনীয় জেড এবং রুবি ব্যবসা। কিন্তু এখনও তেমন কোনো নিষেধাজ্ঞা নেয়া হয়নি।

গত সপ্তাহে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ সর্বসম্মতিক্রমে মিয়ানমারে দ্রুত অবনতিশীল পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে।

নিউজ হান্ট/আরকে