মেসির জাদুতে বার্সেলোনার গুরুত্বপূর্ণ জয়

29

মৌসুমের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে বিপদে পড়তে বসেছিল বার্সেলোনা। কিন্তু আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসির দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে শুরুতে পিছিয়ে থেকেও প্রতিপক্ষের মাঠ থেকে জয় নিয়ে ফিরেছে বার্সেলোনা। এই জয়ে শিরোপা লড়াইয়ে ভালোমতোই টিকে রইলো রোনাল্ড কুমানের দল।

রবিবার রাতে স্প্যানিশ লা লিগায় গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ভ্যালেন্সিয়ার মাঠ মেস্তায়া স্টেডিয়ামে স্বাগতিকদের ৩-২ গোলে হারিয়েছে বার্সেলোনা। বার্সেলোনার হয়ে জোড়া গোল করেন লিওনেল মেসি, এক গোল করেন আতোয়ান গ্রিজম্যান। স্বাগতিকদের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন গাব্রিয়েল পাউলিস্তা।

কঠিন চ্যালেঞ্জে বার্সেলোনার শুরুটা হতো পারতো দারুণ। কিন্তু ফ্রেংকি ডি ইয়ংয়ের ছোট পাস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন তরুণ মিডফিল্ডার পেদ্রি। ১০ মিনিট পর মেসির দারুণ ফ্রি কিকে ফ্লিক করেন রোনালদ আরাহো, বল যায় গোলরক্ষক বরাবর।

ধীরে ধীরে গুছিয়ে ওঠা ভালেন্সিয়া ২৬তম মিনিটে প্রথম প্রতিপক্ষ গোলরক্ষকের পরীক্ষা নেয়। ডি-বক্সের বাইরে থেকে মিডফিল্ডার উরোস রাসিচের নিচু শট যদিও মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেনকে তেমন ভাবাতে পারেনি। পাঁচ মিনিট পর মেসির ফ্রি কিক ক্রসবারের একটু ওপর দিয়ে বাইরে যায়।

দ্বিতীয়ার্ধের চতুর্থ মিনিটে দারুণ এক প্রতি-আক্রমণে ‘ওয়ান-অন-ওয়ানে’ গোলরক্ষক বরাবর শট নিয়ে হতাশ করেন গনসালো গেদেস। কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান টের স্টেগেন।  সাত মিনিট পর বার্সাকে সমতায় ফেরান মেসি।

ডি-বক্সে ভ্যালেন্সিয়া ডিফেন্ডার বল ইচ্ছাকৃত হাত দিয়ে আটকালে পেনাল্টি দেন রেফারি। মেসির নেওয়া পেনাল্টি ঠেকিয়ে দেন ভ্যালেন্সিয়া গোলরক্ষক। বল গিয়ে পরে পেদ্রির সামনে, তার শট গোললাইনে প্রতিহত হয়। এরপর মেসি আবারও শট নিয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন। ৬৩ মিনিটে এগিয়ে যায় বার্সা।

এর ঠিক ৭ মিনিট পর ফের দেখা মিলে মেসির জাদু। ৬৯তম মিনিটে ফ্রিকিযে  প্রায় ২০ গজ দূর থেকে অসাধারণ বাকানো শটে ভ্যালেন্সিয়া গোলরক্ষককে পরাস্ত করে বার্সেলোনার জয় নিশ্চিত করেন মেসি। এ নিয়ে চলতি লিগে ২৮ গোল হলো মেসির।

আগের ম্যাচে লাল কার্ড দেখায় এই ম্যাচে ডাগ আউটে ছিলেন না কুমান। আগামী শনিবার পরের রাউন্ডে আতলেতিকোর বিপক্ষে ঘরের মাঠেও তাকে পাবে না বার্সেলোনা। আরেকটি কঠিন লড়াই কোচকে ছাড়াই পাড়ি দিতে হবে তাদের।

এই জয়ে লা লিগার ৩৪ ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদের সমান ৭৪ পয়েন্ট হলো বার্সেলোনার। তবে মুখোমুখি লড়াইয়ে এগিয়ে থাকায় পয়েন্ট টেবিলের দুই নম্বরে রিয়াল। সমান ম্যাচে ৭৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিরে সবার ওপরে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।

নিউজ হান্ট/ইস

পূর্ববর্তী নিবন্ধরোনালদোর জোড়া গোলে শীর্ষ তিনে জুভেন্টাস
পরবর্তী নিবন্ধঅসহায় আত্মসমর্পণে সিরিজ হারল বাংলাদেশ