মোদির বাংলাদেশের ভিসা বাতিল চাইলেন মমতা

22

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের তীব্র সমালোচনা করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতা বলেন, বাংলায় ভোটের সময় আপনি বাংলাদেশে কেন? আপনি যদি ভোট চলাকালীন বাংলাদেশে একটি বিশেষ শ্রেণির মানুষের জন্য ভোট চাইতে যান, তাহলে আপনার ভিসা-পাসপোর্ট কেন বাতিল হবে না? আমরা নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ করব। কখনো বলছে বাংলাদেশ থেকে মমতা সব অনুপ্রবেশ করিয়েছে, আবার কখনও বাংলাদেশে গিয়ে মার্কেটিং করছে। কে ঠিক আর কে ভুল, তার জবাব চাই। নইলে যতদূর যাওয়ার আমরা যাব।

শনিবার এ কথা বলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির থেকে এ তথ্য জানা যায়।

এছাড়া বাংলাদেশ সফর করে নরেন্দ্র মোদি পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনে ভোটারদের প্রভাবিত করছেন বলেও অভিযোগ তুলেছেন এই মুখ্যমন্ত্রী।

রাজ্যের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল তৃণমূল কংগ্রেসের এই নেত্রী বলেন, ২০১৯ সালে লোকসভার নির্বাচনে আমাদের সমাবেশে বাংলাদেশি একজন অভিনেতা অংশ নিয়েছিলেন। বিজেপি সেই সময় বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে কথা বলে এবং তার ভিসা বাতিল করে। এখানে যখন ভোট চলছে, তখন আপনি (প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি) জনগণের একাংশের ভোট চাইতে বাংলাদেশে গেছেন। তাহলে কেন আপনার ভিসা বাতিল হবে না? আমরা নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ করব।

এর আগে, দিনের শুরুতে মতুয়া সম্প্রদায়ের আধ্যাত্মিক গুরু হরিচাঁদ ঠাকুরের জন্মস্থান বাংলাদেশের ওড়াকান্দিতে একটি মন্দিরে নরেন্দ্র মোদির পূজার কথা উল্লেখ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হিন্দু মতুয়া সম্প্রদায়ের শত শত মানুষ ওড়াকান্দিতে বসবাস করেন। এই সম্প্রদায়ের তিন কোটির বেশি মানুষের আবাস পশ্চিমবঙ্গ; যেখানে এবারের নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ক্রীড়নক হতে পারেন তারা।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, অনেক সময় তারা বলেন, মমতা বাংলাদেশ থেকে লোকজন আনছেন এবং অনুপ্রবেশ করাচ্ছেন। কিন্তু তিনি (নরেন্দ্র মোদি) ভোটের মার্কেটিং করার জন্য বাংলাদেশে গেছেন।

নিউজ হান্ট/এনএইচ