মোদিসহ মমতাকে অভিনন্দন জানালেন যারা

23

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানিয়েছেন। মমতার দল তৃণমূল কংগ্রেস বিধানসভা নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় আজ রোববার সন্ধ্যায় এক টুইট বার্তায় মোদি এ অভিনন্দন জানান। নির্বাচনে তৃণমূলের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী মোদির দল বিজেপি।

টুইটে মোদি বলেন, ‘মমতা দিদিকে পশ্চিমবঙ্গে তাঁর দল তৃণমূল কংগ্রেসের জয়ের জন্য অভিনন্দন। কেন্দ্র পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে জনগণের প্রত্যাশা ও কোভিড-১৯ মহামারি থেকে বের হয়ে আসতে সব ধরনের সম্ভাব্য সহযোগিতা দিয়ে যাবে।’

নরেন্দ্র মোদির অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে কেরালার সিপিআই (এম) নেতা পিনারাই বিজয়ন ও তামিলনাড়ুর এম কে স্টালিনকেও অভিনন্দন জানানো হয়েছে। এই দুই রাজ্যে এই দুই নেতার দল জয়ের পথে রয়েছে।

নির্বাচনের ফল ঘোষণা শুরুর পর থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানাতে শুরু করেন বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও রাজনৈতিক দলের নেতারা।

‘বাংলায় মানুষের রায়কে সম্মান’ জানিয়ে টুইট করেন মোদির ডানহাত হিসেবে পরিচিত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। রাজ্যে বিজেপিকে শক্তিশালী করার জন্য ধন্যবাদ দেন রাজ্যবাসীকে।

বাংলায় বিজেপির প্রবল ধাক্কা খাওয়ার আভাস পেয়েই একের পর এক টুইট করে মমতাকে শুভেচ্ছা জানাতে শুরু করেন সর্বভারতীয় নেতারা। চূড়ান্ত ফলপ্রকাশের আগেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আগাম শুভেচ্ছা জানিয়ে রাখেন এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ার। এক টুইটে তিনি লিখেন, এই জয়ের জন্য আপনাকে অভিনন্দন। আসুন সবাই মিলে মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করি। করোনা অতিমারীরও মোকাবিলা করি।

মমতাকে শুভেচ্ছা জানান দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এক টুইটে তিনি লিখেন, ল্যান্ডস্লাইড এই জয়ের জন্য মমতা দিদিকে অভিনন্দন। বাংলার মানুষকে ধন্যবাদ।

তৃণমূল নেত্রীকে শুভেচ্ছা জানান উত্তরপ্রদেশের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব। পাশাপাশি মোদিকে কটাক্ষও করেন তিনি। অখিলেশ যাদব টুইট করে বলেন, পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির ঘৃণার রাজনীতিকে পরাজিতকারী বাংলার সজাগ মানুষ ও শ্রীমতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তৃণমূল কর্মীদের আন্তরিক অভিনন্দন। এক মহিলাকে ‘দিদি, ও দিদি’ বলে যে অপমান করা হয়েছিল তার যোগ্য জবাব দিয়েছে বাংলার মানুষ।

কংগ্রেস নেতা ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শশী থাথুর টুইটে বলেছেন, ‘সাম্প্রদায়িকতা এবং অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের এই অসাধারণ জয়ের জন্য তাকে অভিনন্দন। বাংলা এবং বিশেষ করে নন্দীগ্রামের ভোটাররা বুঝিয়ে দিয়েছেন, তাদের মনের.যোগাযোগ কার সঙ্গে। বাংলায় হেরে বিজেপি বুঝেছে কাদের সঙ্গে লড়তে এসেছিল’।

প্রাথমিক প্রবণতায় তৃণমূলের জয়ের আভাস পেয়ে মমতাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মোদির নিজের রাজ্য গুজরাটের বিরোধী নেতা হার্দিক প্যাটেল। টুইট করে তিনি জানিয়েছেন, ঘৃণার রাজনীতির বিরুদ্ধে বাংলার মানুষ একটা দিশা দেখিয়ে দিয়েছে। বাংলার মানুষ দেখিয়ে দিয়েছে সাম্প্রয়ায়িক রাজনীতিকে হারানো যায়।

রাজ্যের মন্ত্রী ও কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেছেন, ‘কোনো দুশ্চিন্তা নেই আমার। টেনশন লেনে কা নহি, দেনে কা হ্যায়। মানুষের জন্য কাজ করেছি। আমি নিজেকে “ফর দ্য পিপল, বাই দ্য পিপল, টু দ্য পিপল” বলে মনে করি। মানুষ বিবেচনা করে মতামত দিয়েছেন।’

ন্যাশনাল কনফারেন্সের ভাইস প্রেসিডেন্ট ওমর আবদুল্লাহ মমতাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বিজেপি ও নির্বাচন কমিশনের বিরোধিতা সত্ত্বেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লড়াই করে জয়ী হয়েছেন।

রাজ্যে দুর্দান্ত জয়ের জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে টুইট করে অভিনন্দন জানান রাহুল গান্ধী।

টুইট করেন ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনও। তিনি লিখেন, ‘আরও একবার বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভ করার জন্য মমতা দিদি এবং তৃণমূলকে শুভেচ্ছা। আপনাকে আপনার সরকারের পরবর্তী মেয়াদের জন্য শুভকামনা জানাই’।

বিজেপির হেভিওয়েট নেতা ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংহ অভিনন্দন বার্তায় বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তার দলের বিপুল জয়ের জন্য অভিনন্দন। তার পরবর্তী রাজনৈতিক জীবনের জন্য আমার শুভেচ্ছা’।

বিহারের নেতা লালু প্রসাদ যাদব বলেন, ‘মমতাজীকে এই ঐতিহাসিক জয়ের জন্য আন্তরিক শুভেচ্ছা। সবরকম প্রতিবন্ধকতাকে পার করে এই জয়। আমি পশ্চিমবঙ্গের জনগণকেও অভিনন্দন জানাতে চাই। যাঁরা বিজেপির অপপ্রচারের ফাঁদে না পড়ে দিদির উপর আস্থা রেখেছেন’।

নিউজ হান্ট/আরকে

পূর্ববর্তী নিবন্ধরাবি উপাচার্য ভবনে আবারও তালা
পরবর্তী নিবন্ধরাত ১২টা পর্যন্ত মার্কেট খোলা রাখার দাবি