রাজধানীতে ঝোড়ো হাওয়াসহ বজ্রবৃষ্টি

16

বৈশাখের শুরু থেকেই ঝড়-বৃষ্টির দেখা নেই। গত দুই সপ্তাহ ধরে ঢাকাসহ দেশের অধিকাংশ এলাকায় দাবদাহ বয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু বৈশাখের শেষ দিকে প্রকৃতির মেজাজ বদলাতে শুরু করে। গত তিন-চার দিন ধরে দেশের কোথাও কোথাও ঝড়-বৃষ্টি হচ্ছে। গত ২৮ এপ্রিল ও গত ২ মে রাতে ঢাকার ওপর দিয়ে বয়ে যায় কালবৈশাখী। সোমবার মধ্যরাতেও কালবৈশাখী ছোবল মেরেছে দেশের বিভিন্ন স্থানে। এর প্রভাব রাজধানী ঢাকায়ও এসে পড়ে।

এ দিন ঢাকার ওপর দিয়ে ২০ মিনিট তীব্র বেগে বয়ে যায় কালবৈশাখী। আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ শাহীনুর রহমান বলেন, ‘রাত পৌনে ১২টা থেকে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি শুরু হয়ে ২০ মিনিট তীব্র ছিল। বজ্রপাতের সঙ্গে ঝড়টি বেশ শক্তিশালী ছিল। এরপর ঝড় কিছুটা কমেছে, বেড়েছে বৃষ্টি।’ তবে ঝড়ের গতিবেগ তাৎক্ষণিক জানাতে পারেননি তিনি। ঝড়ে দেশের কোথাও ক্ষয়ক্ষতির খবর জানা যায়নি।

বিভিন্ন স্থানে ঝড় শুরু এবং শেষ হয়ে যাওয়ার পর রাত ১টা ১৩ মিনিটে আবহাওয়া অধিদপ্তর তাদের ফেসবুক পেইজে জানিয়েছে, ঢাকা, গাজীপুর, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ, হবিগঞ্জ, নরসিংদী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চট্টগ্রাম, ফেনী, কুমিল্লা, মাদারীপুর, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর, ঝিনাইদহ, যশোর, কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা, বরিশাল, ভোলা, নোয়াখালী, জামালপুর, শেরপুর ও এর নিকটবর্তী অঞ্চলসমূহ দমকাঝড়োহাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টির সম্মুখীন হতে যাচ্ছে। সেই সাথে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হতে পারে।

রাত দেড়টার দিকে আবহাওয়া অধিদপ্তরে ফোন করেও এর বেশি তথ্য পাওয়া যায়নি। রাত ৩টায় ঝড়ের গতিবেগ ও বৃষ্টির পরিমাণ জানানো হবে বলে জানান আবহাওয়াবিদ শাহীনুর রহমান।

নিউজ হান্ট/ম

পূর্ববর্তী নিবন্ধআরমানিটোলায় আগুন: দগ্ধ দুজন এখনো আইসিইউতে
পরবর্তী নিবন্ধচট্টগ্রামে করোনার যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকার ধরন শনাক্ত