রেমিট্যান্স বাড়তেই থাকবে: অর্থমন্ত্রী

6

দেশে আসা রেমিট্যান্সের পরিমাণ বাড়ছে। করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যেও এই প্রবণতা থেমে নেই। সময়োপযোগী ২ শতাংশ নগদ প্রণোদনাসহ বিভিন্ন সংস্কারমুখী পদক্ষেপের কারণে রেমিট্যান্স বাড়ছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

গেলো মার্চে রেকর্ড এক লাখ ৫৮ হাজার কোটি টাকা রেমিট্যান্স এসেছে। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংক এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে। এই বিষয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় অর্থমন্ত্রী বলেন, রেমিট্যান্স বাড়ছে এবং বাড়তেই থাকবে।

মুস্তফা কামাল বলেন, ‘প্রবাসী আয়ের এই ঊর্ধ্বমুখী ধারা অব্যাহত রাখতে সরকার নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম প্রবাসী আয় পাঠানোর নিয়ামকানুন সহজ করে দেয়া, সময়োপযোগী ২ শতাংশ নগদ প্রণোদনা। এছাড়া আরও বিভিন্ন সংস্কারমুখী গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপের প্রভাবে রেমিট্যান্স বাড়ছে।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের এ অর্জন দিন দিন বেড়েই চলছে, আমাদের প্রত্যাশা এটি আরও বাড়বে। এ বিষয়ে সরকারের প্রতি মানুষের আস্থা ফিরে এসেছে। কাউকে হয়রানি করা হয় না, সময় মতো এর উপকারভোগীর হাতে পৌঁছে যায়। যে কারণে এটি দিন দিন বেড়েই চলছে এবং বাড়তেই থাকবে, ইনশাআল্লাহ।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন অনুযায়ী, করোনার মধ্যেও রেকর্ড পরিমাণ রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। সর্বশেষ মার্চে প্রবাসীরা ১৯১ কোটি মার্কিন ডলারের (১.৯১ বিলিয়ন) রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন, যা টাকার হিসাবে প্রায় ১৬ হাজার কোটি।

২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে ২ শতাংশ হারে প্রণোদনা ঘোষণা করা হয়। বৈধ উপায়ে প্রবাসী আয় বাড়াতে এমন সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। সে অনুযায়ী, গতবছরের ১ জুলাই থেকে প্রবাসীরা ব্যাংকিং চ্যানেলে টাকা পাঠালে প্রতি ১০০ টাকার বিপরীতে ২ টাকা প্রণোদনা পেয়ে আসছেন। ফলে করোনার মধ্যেও রেকর্ড গড়ছে রেমিট্যান্স।

নিউজ হান্ট/কেএইচ