শ্রীলঙ্কা গেলো টাইগাররা

30

শ্রীলঙ্কায় ভালো খেলার প্রতিশ্রুতি দিয়ে দেশ ছাড়লো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। করোনাকালের সফরে ২১ ক্রিকেটার কোচিং স্টাফ ও কর্মকর্তা মিলিয়ে ৪১ জনের বহর নিয়ে খেলতে গেছে টাইগাররা।

কলম্বো পৌঁছে তিনদিনের বাধ্যতামূলক হোটেল কোয়ারেন্টিন শেষে অনুশীলন শুরু করবে মুমিনুল-মুশফিকরা। করোনা সতর্কতায় টাইগারদের জন্য থাকছে না স্থানীয় কোনো দলের সাথে অনুশীলন ম্যাচ। নিজেদের মধ্যে ভাগ হয়ে গা-গরমের ম্যাচ খেলতে হবে বাংলাদেশ দলকে।

দেশ ছাড়ার আগে ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন জানিয়েছেন, বাংলাদেশের কন্ডিশনের সাথে মিল থাকায় লঙ্কান আবহাওয়ায় মানিয়ে নিতে সমস্যা হবে না খেলোয়াড়দের।

অবশ্য দেশ ছাড়ার আগে আশাবাদের কথা শুনিয়ে যান অধিনায়ক মুমিনুল হকও। এক সংবাদ সম্মেলনে মুমিনুল হক বলেন, ‘ম্যাচের প্রত্যেকটা দিন, প্রত্যেকটা সেশন যদি ভালো খেলতে পারি তাহলে শ্রীলঙ্কায় সাফল্য পাওয়া সম্ভব। তবে শ্রীলঙ্কা সবসময়ই তাদের মাটিতে শক্তিশালী দল। আমাদের জন্য কাজটা সহজ হবে না। অনেক চ্যালেঞ্জিং হবে। তবে আমরা চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত।’

দলে নেই সাকিব ও মুস্তাফিজ। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেন, ‘সাকিব ভাই, মুস্তাফিজ দলে না থাকলে সাফল্য আসবে না, আমি এমনটা মনে করি না। দলে আরও ক্রিকেটার রয়েছেন। তা ছাড়া ওনাদের তো আর দশ-বারোটা হাত না। আমরা দল হিসেবে খেলতে পারছি না বলেই সাফল্য আসছে না।’

শ্রীলঙ্কা সফরের প্রস্তুতি সম্পর্কে বাংলাদেশ টেস্ট দলের অধিনায়ক বলেন, ‘আমি বলব না যে খুব ভালো প্রস্তুতি হয়েছে। গত কয়েক টেস্টে আমরা আশানুরূপ ব্যাটিং করতে পারিনি। তাই শ্রীলঙ্কায় রান করা খুব গুরুত্বপূর্ণ হবে।’

এই সিরিজের জন্য ২১ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছে বিসিবি। করোনাভাইরাসের কারণে সফরে নেট বোলার দেবে না লঙ্কানরা। তাই বড় স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়েছে।

আগামী ২১ এপ্রিল পাল্লেকেলেতে প্রথম টেস্ট, এছাড়া একই ভেন্যুতে ২৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ।

বাংলাদেশ দল: মুমিনুল হক (অধিনায়ক), লিটন কুমার দাস, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল, শরিফুল ইসলাম, খালেদ আহমেদ, মুকিদুল ইসলাম, শুভগত হোম, সাদমান ইসলাম, আবু জায়েদ, তাইজুল ইসলাম, নাজমুল হোসেন, মেহেদী হাসান, নাঈম হাসান, তাসকিন আহমেদ, এবাদত হোসেন, সাইফ হাসান, ইয়াসির আলী, শহীদুল ইসলাম এবং নুরুল হাসান।

নিউজ হান্ট/আরকে

পূর্ববর্তী নিবন্ধকরোনায় সাবেক মেয়রের মৃত্যু
পরবর্তী নিবন্ধআটদিন বন্ধ থাকবে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান