সিনোফার্ম টিকার অনুমোদন দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর

15

চীনের তৈরি করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন সিনোফার্ম টিকার অনুমোদন দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর। আজ বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) অধিদপ্তরের এক সভায় এ অনুমোদন দেয়া হয়।

এর আগে গত ২৭ এপ্রিল রাশিয়ার স্পুটনিক-ভি টিকার জরুরি প্রয়োগেরও অনুমোদন দেয় সরকার।

ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবর রহমান এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, জরুরি ব্যবহারের জন্য এ অনুমোদন দেয়া হয়েছে। টিকা আনতে দুই দেশের সরকারের মধ্যে জি টু জি চুক্তি হবে।

আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে টিকার প্রথম চালান আসতে পারে বলে জানা গেছে। তবে, আপাতত উপহারের পাঁচলাখ ডোজ আসবে।

বাংলাদেশেও টিকা উৎপাদন হবে, এর দাম নির্ধারণ করবে সরকার।

দেশে এখন পর্যন্ত ব্যবহার করা হচ্ছে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিশিল্ড টিকা। গত মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) জরুরি ব্যবহারে জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়েছে রাশিয়ার ভ্যাকসিন স্পুটিনক-ভি।

গতকাল (বুধবার) ঔষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর জানায়, চীনের সিনোফার্ম নিয়েও শিগগিরিই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। ওইদিন চীন ও রাশিয়ার করোনা টিকা বাংলাদেশে উৎপাদনের ক্ষেত্রেও নীতিগত অনুমোদন দেয় অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

এর আগে, বাংলাদেশের স্থানীয় ফার্মাসিউটিক্যালগুলোর সহযোগিতায় করোনা (কোভিড-১৯) টিকা উৎপাদনের প্রস্তাব দেয় রাশিয়া। দেশটি তাদের তৈরি ‘স্পুটনিক-ভি’ টিকা বাংলাদেশে উৎপাদন করতে আগ্রহ প্রকাশ করে।

এর আগে দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে রাশিয়ার স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিন প্রয়োগের জরুরি অনুমোদন দেওয়া হয় ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর পক্রের থেকে। অধিদপ্তর জানিয়েছে, মে মাসেই এই ভ্যাকসিনের ৪০ লাখ ডোজ বাংলাদেশে আসবে।

নিউজ হান্ট/আরকে

পূর্ববর্তী নিবন্ধরেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির নতুন চেয়ারম্যান এম আবদুল ওয়াহ্হাব
পরবর্তী নিবন্ধলেভেল-৪ সতর্কতা জারি করে নাগরিকদের ভারত ছাড়তে বলেছে যুক্তরাষ্ট্র