সেই শূন্য হাতেই ফেরা

14

শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচের আগে তিন ফরম্যাটে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তাদের মাটিতে ৩১টি ম্যাচে হার হজম করেছে বাংলাদেশ। আজ বৃহস্পতিবারও (১ এপ্রিল) সেই ধারা অব্যাহত থাকল। ফলে কিউইদের বিপক্ষে জয়ের খাতায় শূন্য রেখেই ফিরতে হচ্ছে টাইগারদের। বৃষ্টি বিঘ্নিত শেষ ম্যাচে স্বাগতিকদের কাছে ৬৫ রানে হেরেছে সফরকারীরা।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তৃতীয় তথা শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে জিততে হলে বাংলাদেশ করতে হতো ১৪২ রান। আর এই রান করতে হতো মাত্র ৬০ বলে।

বৃষ্টিতে খেলা শুরু হতে দেরি হওয়ায় ম্যাচের দৈর্ঘ্য কমে আসে ১০ ওভারে। সেই ১০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৪১ রান করে নিউজিল্যান্ড। জবাবে বাংলাদেশ করতে পারে মাত্র ৭৬ রান। পুরো ১০ ওভার ব্যাটও করতে পারেনি তারা। তিন বল বাকি থাকতেই অলআউট হয় বাংলাদেশ।

ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই জোড়া আঘাত বাংলাদেশ শিবিরে। টিম সাউদির শিকার হন দলের দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার ও লিটন দাস। সৌম্য ১০ আর লিটন ফেরেন খাতা খোলার। পরে একে একে ফেরেন নাজমুল হোসেন শান্ত (৮), আফিফ হোসেন (৮), মেহেদী হাসান (০), শরিফুল ইসলাম (৬) ও তাসকিন আহমেদ (৫)।

বাংলাদেশের হয়ে দুই অঙ্ক ছুঁয়েছেন কেবল ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম (১৯), সৌম্য (১০) ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত (১৩)।

স্বাগতিকদের হয়ে স্পিনার টোড অ্যাস্টল ৪ ও সাউদি ৩ উইকেট নেন। বাকি তিন বোলার নেন একটি করে উইকেট।

এর আগে স্বাগতিকদের হয়ে আগুনে শুরু করেন দুই ওপেনার মার্টিন গাপটিল ও ফিন অ্যালেন। ষষ্ঠ ওভারে গাপটিল আউট হওয়ার আগে করেন ১৯ বলে ৪৪ রান। দলের রান তখন ৮৫। তবে থামেননি অ্যালেন। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ২৯ বলে ৭১ রানের ইনিংস। ইনিংসে ১০টি চার ও তিনটি ছক্কা মারেন তিনি।

এই দুই ব্যাটসম্যান ছাড়া গ্লেন ফিলিপস ৬ বলে ১৪ ও ডারিল মিচেল ৬ বলে ১১ রান। করেন। কিউই ইনিংসে মোট ১০টি ছক্কার মার, সঙ্গে চার ছিল ১২টি।

বাংলাদেশের হয়ে তাসকিন, শরিফুল ও মেহেদী হাসান একটি করে উইকেট নেন।

১৫ বছর পর এই ম্যাচে পঞ্চপাণ্ডব নামে খ্যাত মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মুশফিকুর রহিমকে ছাড়া খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ। তাদের ছাড়া যুদ্ধটা আরও তিক্ত অভিজ্ঞতারই হল তাদের।

নিউজ হান্ট/আরকে