স্পিডবোট মালিক-চালকসহ চারজনের নামে মামলা

49

মাদারীপুরের শিবচরে পদ্মা নদীতে বালুবোঝাই বাল্কহেডে স্পিডবোটের ধাক্কায় ২৬ জন নিহতের ঘটনায় চার জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

মামলায় আসামিরা হচ্ছেন- স্পিডবোটের চালক শাহ আলম, মালিক চান্দু মোল্লা ও রেজাউল এবং বোটের ইজারাদার শাহ আলম।

সোমবার গভীর রাতে নৌপুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) লোকমান হোসেন বাদী হয়ে শিবচর থানায় মামলাটি করেন।

মাদারীপুর নৌপুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.আব্দুর রাজ্জাক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ বিষয়ে শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিরাজ হোসেন জানান, এই মামলার তদন্তভার নৌ-পুলিশের উপরেই থাকবে। আর গুরুতর আহত অবস্থায় স্পিড বোট চালক পুলিশের নজরদারিতে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

গতকাল সোমবার সকালে কাঁঠালবাড়ি ঘাট এলাকায় নোঙর করে রাখে বালুবোঝাই বাল্কহেডে ধাক্কা লেগে স্পিডবোটের ২৬ যাত্রী নিহত হয়। ওই দুর্ঘটনায় মৃত ২৬ জনের মধ্যে ২৫ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

এর মধ্যে মাদারীপুর জেলার চারজন, বরিশালের ছয়জন, খুলনার একই পরিবারের চারজন, কুমিল্লার তিনজন, ফরিদপুরের একজন, চাঁদপুরে একজন , নড়াইলে একজন, মুন্সিগঞ্জ একজন, ঢাকার একজন, ঝালকাঠির একজন, এবং পিরোজপুরের দুইজন। বাকি একজনের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি।

শিমুলিয়ার নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী পরিচালক শাহাদাত হোসেন সোমবার বিকেলে জানান, স্পিডবোটটির কোনো নিবন্ধন ছিল না। এর চালকের ছিল না দক্ষতার সার্টিফিকেট।

তিনি বলেন, উল্টে যাওয়া স্পিডবোটটির নিবন্ধন ছিল না। চালকের যোগ্যতা সনদও নেই। এই নৌরুটের বেশির ভাগ নৌযানের একই অবস্থা।

নিউজ হান্ট/এনএইচ

পূর্ববর্তী নিবন্ধচট্টগ্রামে আরো ১৯৮ জন আক্রান্ত, মৃত্যু ৫
পরবর্তী নিবন্ধএখনো জ্বলছে সুন্দরবন