হঠাৎ খুলনায় কেনো বাড়ছে করোনা?

24

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৫৩৭ জন। ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের হার ও মৃত্যুতে শীর্ষে রয়েছে খুলনা বিভাগ।

নতুন মৃতদের মধ্যে খুলনা বিভাগে সর্বাধিক ১০ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। খুলনা বিভাগে মৃত্যুর পাশাপাশি সর্বাধিক সংখ্যক আক্রান্ত হয়েছে। এ বিভাগে একদিনে ১ হাজার ৫৪৫ জনের মধ্যে ৫৫৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৩৬ দশমিক ১ শতাংশ।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা বলেন, খুলনায় করোনার সংক্রমণ এবং মৃতের সংখ্যা বেড়েছে। এ জন্য মানুষকে সবার আগে বিধিনিষেধ মেনে চলতে হবে। বাড়ির বাইরে বের হলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। অন্তত তিন ফুট দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে করোনা সংক্রমণ কমানো সম্ভব।

খুলনায় চলছে এক সপ্তাহের বিধিনিষেধ। তবে মানুষের মধ্যে বিধিনিষেধ মানতে অনীহা দেখা দিয়েছে। অনেকেই মাস্ক ছাড়ায় চলাচল করছেন। সামাজিক দূরত্বও মেনে চলছেন না। এ জন্য প্রশাসন এবং স্বাস্থ্যবিভাগের পক্ষ থেকে প্রতিনিয়ত সচেতনার জন্য প্রচার-প্রচারণা এবং অভিযান পরিচালনাও করা হচ্ছে।

বুধবার (০৯ জুন) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো সংবাদবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৩৬ জনের মধ্যে খুলনায় সর্বাধিক ১০ জন, রাজশাহীতে ৯ জন, ঢাকা বিভাগের ৬ জন, চট্টগ্রামে ৬ জন, রংপুরে ৪ জন, সিলেটে একজন, বরিশাল ও ময়মনসিংহে কেউ মারা যায়নি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২০ হাজার ৬০৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষা করা হয়েছে ২০ হাজার ৫৮৪টি। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১২ দশমিক ৩৩ শতাংশ।

প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, খুলনা বিভাগে শনাক্তের হার সর্বাধিক ৩৬ দশমিক ১ শতাংশ, রংপুর বিভাগে ৩২ দশমিক ১ শতাংশ, বরিশাল বিভাগে ১৮ দশমিক ৩ শতাংশ, সিলেট বিভাগে ১৬ দশমিক ৫ শতাংশ, রাজশাহী বিভাগে ১৪ দশমিক ৫ শতাংশ, চট্টগ্রাম বিভাগে ১১ দশমিক ৭ শতাংশ, ময়মনসিংহ বিভাগে ১০ দশমিক ২ শতাংশ এবং ঢাকা বিভাগে শনাক্তের হার ৭ দশমিক ০৩ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এ পর্যন্ত করোনায় দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে ১২ হাজার ৯৪৯ জনের। এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৬১ লাখ ৬ হাজার ৭৯১টি। মোট শনাক্ত হয়েছেন ৮ লাখ ১৭ হাজার ৮১৯ জন। মোট পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৩৯ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ২ হাজার ২৬৭ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৭ লাখ ৫৭ হাজার ৫৬৯ জন।

নিউজ হান্ট/ম

পূর্ববর্তী নিবন্ধ২ বছর পর মানসিক ভারসাম্যহীন আক্তার মিয়া ফিরে পেল পরিবার
পরবর্তী নিবন্ধআসছে পাটের পলিথিন ব্যাগ