হাসপাতালে খালেদার ঈদ

17

রাত পোহালেই পবিত্র ঈদ উল ফিতর। অসুস্থতার কারণে এবারও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ঈদ কাটবে হাসপাতালে। করোনা পরবর্তী শারীরিক জটিলতা ও বিভিন্ন অসুস্থতা নিয়ে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী। এর আগে ২০২৯ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে কেটেছিল বিএনপি চেয়ারপারসনের ঈদ।

খালেদার হাসপাতালে ঈদ করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক দলের সদস্য বিএনপি ভাইস-চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন।

জানা গেছে, ঈদের দিন পরিবারের সদস্যরা তার সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। দলের সিনিয়র কয়েক নেতারও চেয়ারপারসনের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করার কথা রয়েছে। চেয়ারপারসন হাসপাতালে থাকায় ঈদ ঘিরে তেমন কোনো আয়োজন নেই বিএনপির।

ঈদের দিন নামাজের পর সকাল ১১টা ৩০ মিনিটে মহাসচিবসহ বিএনপি জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যগণ শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজার জিয়ারত করবেন। এই উপলক্ষে ঢাকা পুলিশ কমিশনারের কাছে নিরাপত্তা ও সহযোগিতা চেয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার একান্ত সচিব এ বি এম আব্দুস সাত্তার চিঠি পাঠিয়েছেন।

দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়া কারাবন্দি হওয়ার আগে প্রতিবছর বর্ণিল আয়োজনে ঈদ উদযাপন করতো বিএনপি। দলীয় চেয়ারপারসন উপস্থিত থেকে শুভেচ্ছা বিনিময় করতেন নেতাকর্মী ও সমর্থকদের সঙ্গে। কিন্তু কারাবন্দি হওয়ার পর থেকে বিএনপির সেই আয়োজন নেই।

কারাগারে যাওয়ার পর ২০১৮ সালে খালেদা জিয়ার ঈদ কাটে নাজিমুদ্দিন রোডের জেলখানায়, ২০১৯ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আর ২০২০ সালে তার সাজা স্থগিত হওয়ায় গুলশানের বাসভবনে ঈদ কাটে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার।

নিউজ হান্ট/কেএইচ

পূর্ববর্তী নিবন্ধঈদ উদযাপন যেন করোনা সংক্রমণের কারণ না হয়: প্রধানমন্ত্রী
পরবর্তী নিবন্ধফেরি দুর্ঘটনা: নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে ১ কোটি করে টাকা দিতে লিগ্যাল নোটিশ