১২৫ বছরে টিকা নিয়ে রেকর্ড গড়া বৃদ্ধের বাংলাদেশ সংযোগ

11

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তরুণদের মধ্যেও যখন করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়ার বিষয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বের খবর মিলছে, তখন ১২৫ বছর বয়সে টিকা নিয়ে রেকর্ড গড়েছেন ভারতের এক লোক। তিনি দেশটির উত্তরপ্রদেশে রাজ্যের কাসির বাসিন্দা স্বামী শিবানন্দ বাবা। এই স্বামী শিবানন্দ বাবার আবার রয়েছে বাংলাদেশ সংযোগ।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, স্বামী শিবানন্দ বাবার জন্ম বাংলাদেশের সিলেটে। ১৮৯৬ সালের ৮ আগস্ট স্বামী শিবানন্দের জন্মের সময় সিলেট ছিল অভিক্ত ভারতের অংশ। ১৯৭৯ সাল থেকে উত্তরপ্রদেশের বারানসির ভেলুপুর এলাকায় বসবাস করছেন তিনি।

বুধবার শতবর্ষী লোকটি যখন টিকা নিতে দুর্গাকুন্ড নগর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের টিকা কেন্দ্রে পৌঁছেছিলেন, তখন সবাই অবাক হয়েছিলেন। সেখানকার স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের ধারণা, তিনিই করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে দেশটির সবচেয়ে বয়স্ক নাগরিক হতে পারেন।

তার শিষ্য (১৯৯৩ সাল থেকে) বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের মেডিকেল অফিসার ডাঃ সুভাষ চন্দ্র গড়াই টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেছেন, ‘আমাদের পাসপোর্ট সহ একাধিক নথি রয়েছে যা তার বয়স ১২৫ বছরের বেশি বলে প্রমাণ করে। তাকে কলকাতার ডাক্তারদের একটি দল পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছিলেন এবং তারা বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না যে, এই বয়সেও তিনি এত ফিট। তিনি সাধারণ জীবনযাপনে বিশ্বাস করেন।’

টিকা দেওয়ার পর যখন তিনি পর্যবেক্ষণে ছিলেন, হাসপাতালের কর্মীরা স্বামী শিবানন্দের সাথে তখন আলাপ-আলোচনা করেছিলেন। তিনি কেবল সেদ্ধ খাবার খান, যোগব্যায়াম অনুশীলন করেন এবং শৃঙ্খলাবদ্ধ জীবনযাপন করেন- এমন কথা শুনে অনেকে অবাক হয়েছিলেন।

একজন স্বাস্থ্যকর্মী বলেন, ‘যখন সে চলে যাচ্ছিল, আমরা তাকে জিজ্ঞাসা করলাম, তিনি কেমন অনুভব করছেন? উত্তরে বলেছিলেন, বেশ শক্তিশালীই বোধ করছেন।

শিবানন্দ আরও বলেছিলেন, লোকেরা বিনা কারণে ভ্যাকসিনকে ভয় পায়। প্রত্যেককে অবশ্যই টিকা নিতে হবে।

শিবানন্দের আগে উত্তরপ্রদেশেরই ১০৯ বছরের রাম দুলাইয়াকে সবচেয়ে বেশি বয়সী টিকা গ্রহীতা হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছিল। রাম ১৮ মার্চ প্রথম ডোজ এবং ২০ এপ্রিল দ্বিতীয় ডোজ টিকা নেন।

নিউজ হান্ট/আরকে

পূর্ববর্তী নিবন্ধপরকীয়ার জেরেই নাটোরে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ খুন
পরবর্তী নিবন্ধবিয়ে নিয়ে মন্তব্যের পর মালালাকে হত্যার হুমকি