২০ দিনের পরিচয় থেকে যেভাবে রেলমন্ত্রীর পরিণয়

24

প্রথম দেখায় ভালোলাগা। তারপর প্রস্তাব।দুইপক্ষ রাজি হতেই পরিণয়ের আয়োজন। মাত্র ২০ দিনের ব্যবধানে রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন এভাবে গত ৫ জুন জীবনের নতুন ইনিংস শুরু করেছেন।

মন্ত্রী বিয়ে করেছেন দিনাজপুরের বিরামপুরের মেয়ে শাম্মী আকতার মনিকে। তাদের বিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শাম্মী আকতার মনির বড় ভাই মো. মিলন হোসেন।

বিরামপুর নতুন বাজারে তাদের বাসা। ওই এলাকার মৃত আব্দুর রহিমের মেয়ে মনি। মনিরা দুই ভাই এক বোন। দুই ভাই বর্তমানে বিরামপুরের বাসায় থাকেন। বড় ভাই মিলন হোসেন ইলেকট্রিক ব্যবসায়ী। অপরজন স্থানীয় ব্যবসায়ী। তাদের আগের বাড়ি পাবনায় ছিল।

মন্ত্রীর স্ত্রী ‘ল’ পাস করে হাইকোর্টে প্র্যাকটিস করছেন। আইনী কাজে মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে গেলে সেখানেই দুজনের পরিচয়।

শাম্মী আকতারের আগে কুষ্টিয়ায় বিয়ে হয়েছিল। পারিবারিক সমস্যার কারণে ২০১১ সালে ডিভোর্স হয়ে যায়। ওই ঘরে একটি মেয়ে রয়েছে। এরপর থেকে মেয়েকে নিয়ে ঢাকায় থাকেন তিনি।

নূরুল ইসলাম সুজনের স্ত্রী নিলুফার জাহান ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগ-মুহূর্তে মারা যান। তাদের এক ছেলে ও দুই মেয়ে। তিন সন্তানেরই বিয়ে হয়েছে। ৬৫ বছর বয়সী নূরুল ইসলাম ১৯৫৬ সালের ৫ জানুয়ারি পঞ্চগড়ে জন্মগ্রহণ করেন।

পঞ্চগড়-২ (বোদা-দেবীগঞ্জ) আসন থেকে নবম, দশম এবং একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। ২০১৮ সালে নির্বাচিত হওয়ার পর রেলমন্ত্রী হন।

 

পূর্ববর্তী নিবন্ধচট্টগ্রামে একদিনে করোনা আক্রান্ত ১২৯ জন, মৃত্যু ৩
পরবর্তী নিবন্ধমাদকবাহী মাইক্রোবাসের ধাক্কায় প্রাণ হারালেন এএসআই