বুধবার, ডিসেম্বর ১, ২০২১

আমাদের জ্বলবে, অপু ভাইয়ের তাতেই চলবে

আরও পড়ুন

অমৃত মলঙ্গী: অপুকে নিয়ে ওয়েব সিরিজ নির্মাণ করছেন পরিচালক অনন্য মামুন। এই খবরে কিছু থিয়েটারকর্মী ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। কেউ কেউ অভিমানও করেছেন এই বলে যে-ওই পরিচালক কেন তাদের কথা ভাবেননি। কেউ আবার অপু এবং পরিচালককে খুব বাজেভাবে আক্রমণ করছেন।

টিকটকার অপুকে যখন প্রথম ফেসবুকে দেখি, আমার প্রচণ্ড রাগ হয়েছিল। অসহ্য লাগতো ছেলেটাকে।  সেই থেকে ওর ভিডিও এড়িয়ে যেতাম। কিন্তু হলো কি অপু ঠিকই নিজের কাজ নিজে করে গেল। আমরা যখন ভেবেছি ওর তো চুল কাটার কথা, তখন ও একের পর এক ভিডিও এডিট করেছে। নিজে নিজে শুট করেছে। স্লোমোশন যোগ করেছে। গান যোগ করেছে। ঢাকার রাস্তায় এসেছে। রাতদিন ভিডিও বানিয়ে টিকটক, লাইকি, ফেসবুকে ছেড়েছে। এক শ্রেণির মানুষের কাছে তুমুলভাবে আলোচিত-সমালোচিত এবং ‘জনপ্রিয়’ হয়েছে। অথচ আমরা কিন্তু তাকে কোনো প্ল্যাটফর্ম দেইনি। সে নিজে প্ল্যাটফর্ম ক্রিয়েট করেছে। নিজের রাজত্বে সে হিরো সেজেছে। আর আমাদের জ্বলেছে।

যিনি থিয়েটারে অভিনয় শিখেছেন, তাকে কেন ওই পরিচালক বিবেচনা করছেন না এটিই মূলত আমাদের ক্ষোভের জায়গা। ওই পরিচালক সস্তা জনপ্রিয়তার জন্য অপুকে নিয়েছেন, এটি আমাদের দাবি। এক থিয়েটার কর্মীকে লিখতে দেখলাম, কেউ তাকে প্ল্যাটফর্ম দেয়নি। কারণ তার মামা-খালু নেই। তার মন খারাপ হওয়াটা স্বাভাবিক।

তবু তার প্রতি সম্মান রেখে বলছি, এই জামানায় এই ধরনের কথা নিতান্ত শিশুতোষ। এক দশক আগে যদি এমনটি বলতেন মানা যেত। আপনার যদি ওই মানের ‘যোগ্যতা’ থাকে নিজে কবিতা আবৃত্তি করে ফেসবুকে ছাড়ুন না। নিজে গান করে পোস্ট দিন না। ভালো হলে মানুষ পাগলের মতো দেখবে। প্রচুর মানুষ এভাবে আলোয় এসেছেন। টিভিওয়ালাদের কাছে আপনাকে কেন যেতে হবে? টিভিতো আপনার পকেটে।

অমৃত মলঙ্গীর আরও লেখা: বাংলাদেশের নাগিন ড্যান্স দেখে ভারতে ৩ বন্ধুর কোটি টাকার ব্যবসা

আসল কথা হলো আপনি এসব কিছুই করেননি। আপনি না পারেন ভিডিও এডিট করতে, না পারেন অপুর মতো বোকা বোকা গান অ্যাড করতে। আপনি অভিনয় শিখে চুপ করে বসে আছেন। মানুষের পেছনে ছুটছেন। নিজের পেছনে ছুটছেন না।

দুনিয়াটাতো আসলেই সস্তা। কেউ আপনাকে পাত্তা দেয়ার জন্য বসে নেই। আপনাকে মানুষ তাড়িয়ে দেবে, বঞ্চিত করবে, প্রাপ্য সম্মান, প্রাপ্য পারিশ্রমিক দেবে না। যদি মনে আগুন থাকে, তাহলে নিজেই জ্বালান। নিজের মঞ্চ নিজে তৈরি করুন। অর্থের দোহাই দিয়ে লাভ নেই। ২০২১ সালের মতো সময়ে যদি নিজের চেয়ার নিজে দখল করতে না পারেন, শতজনমেও পারবেন না।

আসল সত্য হলো-আমাদের ব্যর্থতার জন্য কখনোই অন্যরা দায়ী থাকে না। ব্যর্থতা মেনে নেয়ার দায় একমাত্র নিজেরই।

(প্রিয় পাঠক, নিউজ হান্টকে অপরাধ বিষয়ক তথ্য দিতে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন। আপনার কথা শুনবেন সাংবাদিক অমৃত মলঙ্গী। ফেইসবুক আইডি: https://www.facebook.com/amritomalangy/ )

সর্বশেষ