সোমবার, অক্টোবর ১৮, ২০২১

ইলিশ রক্ষার অভিযানে ইউএনও’র নৌযানে হামলা

আরও পড়ুন

মেহেন্দিগঞ্জে মা ইলিশ রক্ষার অভিযানে গিয়ে মাঝ নদীতে জেলেদের হামলার শিকার হয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. শাহাদাত হোসেন মাসুদ।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার দড়িচর খাজুরিয়া ইউনিয়নের গজারিয়া নদীর সিকদার বাড়ি ঘাট সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

হামলাকারীরা ইউএনও’র স্পিডবোটে সজোরে ট্রলার দিয়ে ধাক্কা দেয়। এ সময় দুই আনসার সদস্য নদীতে পড়ে যান এবং একজনের শটগান নদীতে পড়ে তলিয়ে যায়।

ঘটনার পরপরই স্থানীয় থানা পুলিশসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা ওই এলাকায় কঠোর অবস্থান নেন। স্থানীয় জেলেদের মধ্যে গ্রেপ্তার আতঙ্কের পাশাপাশি চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সিকদার ঘাট সংলগ্ন নদীতে জেলেদের বেশ কয়েকটি ট্রলার ধাওয়া করে ইউএনওর নেতৃত্বে অভিযানে ব্যবহৃত স্পিডবোট। এ সময় জেলেরা ইউএনও’র স্পিডবোট লক্ষ্য করে পাল্টা হামলা চালায়। তারা স্পিডবোটকে ট্রলার দিয়ে সজোরে ধাক্কা দেয়।

হামলার শিকার ইউএনও শাহাদাত হোসেন মাসুদ বলেন, ‘গজারিয়া নদীতে মা ইলিশ রক্ষার অভিযানে গেলে একদল জেলে নদীর তিন দিক থেকে তিনটি শক্তিশালী ইঞ্জিনচালিত ট্রলার নিয়ে ইটপাটকেল ছোড়া শুরু করে। হামলাকারীরা ট্রলার দিয়ে আমাদের স্পিডবোটে সজোরে ধাক্কা দেয়।’

ইউএনও আরও বলেন, ‘স্পিডবোটে থাকা সকলেই কমবেশি আহত হয়েছি। স্পিডবোটে থাকা দুইজন আনসার সদস্য নদীতে পড়ে যান। তাদেরকে উদ্ধার করা হলেও এক আনসার সদস্যের আগ্নেয়াস্ত্র নদীতে তলিয়ে যায়। আনসার সদস্যের অস্ত্র উদ্ধারে বরিশাল রিভার ফায়ার সার্ভিসের স্টেশনের ডুবুরিরা নদীতে তল্লাশি করেছেন।’

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তলিয়ে যাওয়া শটগানটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে মেহেন্দিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শফিকুল ইসলাম জানান, ইউএনও’র ওপর হামলার খবরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অবস্থান নেয়। সরকারি কাজে বাধা ও হামলার ঘটনায় হমলাকারীদের আটক করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।’

নিউজ হান্ট/ম

সর্বশেষ