সোমবার, নভেম্বর ২৯, ২০২১

কুমিল্লায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে সহযোগীসহ প্যানেল মেয়র নিহত

আরও পড়ুন

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ১৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর, প্যানেল মেয়র ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি সৈয়দ মো: সোহেল (৪৫) ও তার সহযোগী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সদস্য হরিপদ সাহা (৫৫) নিজ কার্যালয়ে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হয়েছেন। এ সময় হামলায় আরো ৫ জন আহত হয়েছেন।

কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ওসি আনোয়ারুল আজিম ও কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ক্যাজুয়ালিটি বিভাগের চিকিৎসক নাফিজ সোমবার সন্ধ্যায় দু’জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আজ সোমবার (২২ নভেম্বর) বিকেলে নগরীর পাথুরিয়াপাড়া পানুয়া খানকা শরীফ সংলগ্ন কাউন্সিলর কার্যালয়ে এ হামলার ঘটনা ঘটে। কয়েকটি মোটরসাইকেলে করে সন্ত্রাসীরা এসে প্রকাশ্য দিবালোকে এলোপাতাড়ি গুলি চালালে তারা নিহত হন।

নিহত কাউন্সিলর সৈয়দ মো: সোহেল পাথুরিয়াপাড়া এলাকার সৈয়দ শাহজাহানের ছেলে। হরিপদ সাহা নবগ্রাম এলাকার বাসিন্দা। তিনি নগরীর ১৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য ছিলেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার বিকালে কাউন্সিলর সৈয়দ মো: সোহেল নিজ কার্যালয়ে বসে রাজনৈতিক কর্মীদেরকে নিয়ে একটি বৈঠক করছিলেন। এমতাবস্থায় ৪টি মোটরসাইকেলে সেখানে এসে ৭-৮ জন সন্ত্রাসী ওই কাউন্সিলরকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে হামলাকারীরা গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায়।

কাউন্সিলরের পেটে, বুকে ও মাথায় তিনটি এবং হরিপদ সাহার পেটে ও বুকে দুটি গুলিবিদ্ধ হয়। গুলিতে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক মো: সোহেল চৌধুরী (৩৮), কাউন্সিলরের সহযোগী রিজু (২৩), সদস্য মো: বাদল (২৮), জুয়েল (৪০) ও রাসেল (৩২) আহত হন।

আশপাশের লোকজন আহতদেরকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা ৬টার দিকে কাউন্সিলর সৈয়দ মো: সোহেল ও হরিপদ সাহা মারা যান। বাকি চারজন কুমেকে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

নিউজ হান্ট/আরকে

সর্বশেষ