সোমবার, নভেম্বর ২৯, ২০২১

‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়নি’

আরও পড়ুন

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে করোনারি কেয়ার ইউনিট-সিসিইউতে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়নি বলে জানিয়েছেন তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিক্যাল বোর্ডের এক চিকিৎসক।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে শনিবার সকালে তিনি বলেন, ‘বোর্ডের পরামর্শে তাকে (খালেদা জিয়া) তরল খাবার দেয়া হচ্ছে। গত রাতে আমি তার স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নিয়েছি। আমাকে দেখে বলেন, তুমি কে? আমি আমার পরিচয় দিলাম।’

তিনি বলেন, ‘যেটা দেখলাম সেটা হচ্ছে, উনার এক হাত বেঁকে গেছে, সবাইকে দেখে তিনি কথা বলতে চান। কিন্তু তার কথা পরিষ্কার শোনা যায় না; স্পষ্ট শব্দ বের হয় না। এটা বেশি বয়স ও প্রচণ্ড অসুস্থ থাকার কারণে হতে পারে।’

গত ১২ অক্টোবর রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তির পর ৭ নভেম্বর গুলশানের বাসা ‘ফিরোজা’য় ফেরেন খালেদা জিয়া। তখন তার শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছিল।

ছয় দিন পর (১৩ নভেম্বর) আবারও হাসপাতালেই ফিরতে হয় তাকে। বর্তমানে এভার কেয়ারের সিসিউইতে ‘আইসিইউ’র চিকিৎসা চলছে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর।

বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য যাওয়ার সুযোগ দিতে দলীয়ভাবে পঞ্চমবারের মতো আনুষ্ঠানিক আবেদন জানালেও সরকারের পক্ষ থেকে তা নাকচ করে দেওয়া হয়েছে।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসার সঙ্গে যুক্ত দায়িত্বশীলদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিএনপি চেয়ারপারসনের চিকিৎসা নিয়ে দফায়-দফায় চিকিৎসকরা কথা বলছেন। নিবিড় পর্যবেক্ষণ ও স্বাস্থ্যগত আপডেট পর্যালোচনার মধ্য দিয়ে তার চিকিৎসা কার্যক্রম চলছে। যদিও কোনও চিকিৎসকই এ বিষয়ে কথা বলতে নারাজ।

শুক্রবার রাতে যোগাযোগ করা হলেও খালেদা জিয়ার চিকিৎসক টিমের অন্যতম সদস্য এবং বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি।

দলীয় একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, ২৪ ঘণ্টাই চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে আছেন খালেদা জিয়া। তার শারীরিক অবস্থা উন্নতির দিকে নিতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন চিকিৎসকেরা।

তারা বরাবরই বলে এসেছেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি কারাগারে যাওয়ার পর থেকে তার অসুস্থতা দিনে-দিনে অবনতির দিকে যায়। বর্তমানে তার ডায়াবেটিস, রিউম্যাটোলজি, উচ্চ রক্তচাপজনিত সমস্যা অনেক বেশি। যে কারণে তার মাল্টিফাংশনাল মেডিক্যাল সেন্টারে চিকিৎসা দরকার।’

বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) বিকালে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেন, ‘মেডিক্যাল বোর্ড জানিয়েছে, দেশে তার উন্নত চিকিৎসা সম্ভব নয়। ম্যাডাম এখন যে অবস্থায় আছেন তা সমাধানযোগ্য। কিন্তু চিকিৎসকদের আশঙ্কা, সময়োপযোগী সঠিক ও উন্নত চিকিৎসা না পেলে তিনি এমন এক জায়গায় উপনীত হবেন, যখন কোনও চিকিৎসা আর কাজে আসবে না।’

দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে অনতিবিলম্বে খালেদা জিয়ার জীবনরক্ষায় বিদেশে চিকিৎসা নিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান মির্জা ফখরুল।

দলের নেত্রীর মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে আগামীকাল (২০ নভেম্বর) ঢাকায় কেন্দ্রীয়ভাবে এবং সারাদেশের মহানগর ও জেলা পর্যায়ে গণঅনশন কর্মসূচি ডেকেছে বিএনপি।

নিউজ হান্ট/ম

সর্বশেষ