সোমবার, অক্টোবর ১৮, ২০২১

গতির ঝড় তুলে বিশ্বকাপে ভারতের নেটে উমরান

আরও পড়ুন

বল হাতে এবারের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএলে) গতির ঝড় তুলেছিলেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের কাশ্মীরি পেসার উমরান মালিক। তার হাত থেকেই এসেছে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৫৩ কিলোমিটার গতির বল। যে কীর্তি উমরান ছাড়া এখনও কোনো ভারতীয় ক্রিকেটার করতে পারেননি। এই ক্রিকেটারকে এবার বিশ্বকাপের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতে রেখে দিয়েছে ভারত ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের নেট বোলারের দায়িত্ব পালন করবেন তিনি।

হায়দরাবাদের এবারের আইপিএল যাত্রা শেষ। তাই স্বাভাবিকতই দেশে ফিরে আশার কথা তার। কিন্তু তিনি থেকে যাচ্ছেন বিশ্বকাপের ভেন্যু সংযুক্ত আরব আমিরাতে। মরুর বুকে উমরানের রয়ে যাওয়ার ব্যাপারটি নিশ্চিত করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ বলেছে, ‘মালিক নেট বোলার হিসেবে ভারত দলের সঙ্গে থাকবে।’

এবারের আইপিএলে তিনটি ম্যাচ খেললেও সেনসেশন বলা হচ্ছে ২১ বছর বয়সী উমরানকে। ৬ অক্টোবর রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে দলীয় নবম ওভারের প্রথম বলটি ১৪৭ কিলোমিটার গতিতে করেন উমরান। পরেরটিই স্পর্শ করে ১৫০! তৃতীয় ডেলিভারি ছিল ১৪৭ কিলোমিটার গতির।

অভিষেক ম্যাচে ৪ ওভারে ২৭ রান দেন উমরান, ১৫০ কিলোমিটার পেরিয়ে যায় তার আরও কয়েকটি ডেলিভারি।

দ্বিতীয় ম্যাচে ৪ ওভারে ২১ রান দিয়ে নেন ১টি উইকেট। তবে আলোচনার জন্ম দেন আবারও গতি দিয়ে। এ দিন তার একটি ডেলিভারি ছাড়িয়ে যায় ১৫৩ কিলোমিটার, এবারের আইপিএলের যা দ্রুততম ডেলিভারি। গতির সঙ্গে তার নিশানাও ছিল দারুণ।

তৃতীয় ম্যাচে উইকেটের দেখা পান আরেকটি। যদিও ইশান কিষান ও সূর্যকুমার যাদবের ব্যাটিং তাণ্ডবে পড়ে এ দিন ৪ ওভারে খরচ হয় তার ৪৮ রান। তবে সব মিলিয়ে গতি দিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটকে নাড়া দেওয়া হয়ে যায় তার।

প্রতিপক্ষে গতিময় পেসারদের জন্য প্রস্তুত হতেই উমরানকে এখন রাখা হচ্ছে ভারতীয় দলের নেটে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত প্রথম ম্যাচ খেলবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে, ২৪ অক্টোবর।

নিউজ হান্ট/ইস

সর্বশেষ