Home প্রযুক্তি ও বিজ্ঞান গুগলকে পেছনে ফেলে শীর্ষে টিকটক

গুগলকে পেছনে ফেলে শীর্ষে টিকটক

গুগলকে পেছনে ফেলে শীর্ষে টিকটক

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগলকে পেছনে পলে অনলাইনে শীর্ষস্থান দখল করেছে চীনের ভিডিও অ্যাপ টিকটক। গুগলের চেয়ে টিকটক বেশি হিট বলে জানিয়েছে আইটি নিরাপত্তা সংস্থা ক্লাউডফ্লেয়ার। খবর বিবিসির

খবরে বলা হয়েছে, টিকটক এই বছরের ফেব্রুয়ারি, মার্চ এবং জুন মাসেই গুগলকে এক নম্বর অবস্থান থেকে সরিয়েছে। এরপর জুলাইতে গুগল স্বল্প সময়ের জন্য শীর্ষে ফিরলেও অগাস্ট থেকে টিকটকই এক নম্বরে অবস্থান করছে।

গত বছর র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে ছিল গুগল। তারপর শীর্ষ দশে ছিল টিকটক, অ্যামাজন, অ্যাপল, ফেইসবুক, মাইক্রোসফট এবং নেটফ্লিক্সসহ কয়েকটি সাইট। নিজস্ব ওয়েব ট্রাফিক পর্যবেক্ষণ টুল ‘ক্লাউডফ্লেয়ার রেডার’ ব্যবহার করে ডেটা ট্র্যাক করে ক্লাউডফেয়ার।

অপর ডেটা প্রতিষ্ঠান সেন্সর টাওয়ার জানিয়েছে, এ বছরের জুলাই মাসের মধ্যে টিকটক তিনশ’ কোটি বারের বেশি ডাউনলোড হয়েছে। চীনা প্রতিষ্ঠান বাইটড্যান্সের মালিকানাধীন এই সামাজিক নেটওয়ার্কটির এখন বিশ্বব্যাপী সক্রিয় ব্যবহারকারী একশ’ কোটিরও বেশি এবং এই সংখ্যা ক্রমাগত বাড়ছে।

চীনে সেন্সরশিপ নীতিমালার কারণে বাইটড্যান্স টিকটকের বিকল্প হিসেবে ডৌয়িন নামে ভিন্ন একটি অ্যাপ ব্যবহার করে। সেখানে ডৌয়িনের ব্যবহারের নীতিমালা রয়েছে চীনের।

২০১৮ সালে চীনের অপর সামাজিক মাধ্যম মিউজিক্যালি’র সঙ্গে একীভূত হওয়ার পর অ্যাপটিতে ব্যবহাকারীদেরকে গানের সঙ্গে লিপ-সিঙ্ক করার সুযোগ আসে। এর পরপরই আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এ ধরনের ভিডিও শেয়ারের জোয়ার তৈরি হয়। টিকটকে সংক্ষিপ্ত ভিডিও হোস্ট করা যায়। এতে সচরাচর কমেডি, নাচ এবং রাজনীতির মতো বিষয় উঠে আসে।

খাবার এবং রেসিপির ভিডিও টিকটকের সাফল্যে বড় প্রভাব রাখছে। এ ধরনের ভাইরাল ক্লিপগুলি লক্ষ লক্ষ ভিউ পায়।

নিউজ হান্ট/কেএইচ