সোমবার, জুলাই ৪, ২০২২

ছয় দিন যাবত গ্যাস বন্ধ, অবৈধদের শিক্ষা দিতে এ ব্যবস্থা

আরও পড়ুন

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর এলাকায় গত ছয় দিন যাবত গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। ফলে এলাকাবাসির দুর্ভোগ চরমে উঠেছে।
ওই এলাকায় বৈধ সংযোগের চেয়ে অবৈধ সংযোগ কয়েক গুণ বেশি হওয়ায় এবং বৈধদেরও বিল বকেয়া থাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ।

গত ১০ মে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ সেখানে সরবরাহ বন্ধ করে দেয়। কামরাঙ্গীরচর বিতরণ লাইনের অন্তর্ভুক্ত সব এলাকাতেই গ্যাস সংযোগ এখন বিচ্ছিন্ন।

এদিকে ছয় দিন ধরে গ্যাস সরবরাহ না থাকায় বাসা বাড়ির রান্না বন্ধ রয়েছে। পাশাপাশি হোটেল রেস্টুরেন্টেও পাওয়া যাচ্ছে না খাবার। এ অবস্থায় সোমবার (১৬ মে) দুপুরে কামরাঙ্গীচরের পূর্ব রসুলপুর এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে তিতাস গ্যাসের এমডির পদত্যাগ চেয়েছেন ভুক্তভোগী এলাকাবাসী।

তিতাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. হারুনুর রশীদ মোল্লাহ দাবি করেন, ওই এলাকায় গ্রাহকদের কাছে তার প্রতিষ্ঠানের বকেয়া ৮৩ কোটি টাকা।

তিনি বলেন, “ওই এলাকায় প্রচুর অবৈধ সংযোগ রয়েছে। আবাসিক থেকে শুরু করে চানাচুর, আইসক্রিম তৈরির প্রতিষ্ঠানও অবৈধ সংযোগ নিচ্ছে। বৈধ গ্রাহক ১২ হাজার হলেও সেখানে এক লাখ অবৈধ গ্রাহক। অবৈধ গ্রাহকদের জন্য বৈধদের গ্যাস পেতে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে।”

তিনি বলেন, “সেখানকার গ্রাহকরা অনেক বছর ধরে বিল দেন না। অনেক গ্রাহকের কাছে নয় লাখ, আট লাখ, সাত লাখ টাকার বিল বকেয়া। বৈধ সংযোগধারী অনেকের কাছেও বিল বকেয়া। এজন্য সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। উচ্চ পর্যায়ের সিদ্ধান্তেই আমরা এ ব্যবস্থা নিয়েছি।”

সর্বশেষ