সোমবার, অক্টোবর ১৮, ২০২১

দুর্গাপূজায় নাশকতার শঙ্কা নেই: র‌্যাব ডিজি

আরও পড়ুন

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে রাজধানীসহ সারাদেশে কোনো ধরনের উগ্রবাদী হামলা বা নাশকতার আশংকা নেই।

‘এবছর আমাদের কাছে উগ্রবাদী হামলা সম্পর্কিত গোয়েন্দা তথ্য নেই’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, এরপরও ‘আমরা আত্মতুষ্টিতে ভুগছি না, যেকোনো ধরনের উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবিলায় আমরা প্রস্তুত রয়েছি। এছাড়া যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় র‌্যাবের এয়ার উইংয়ের হেলিকপ্টার সার্বক্ষণিক প্রস্তুত রাখা হয়েছে।’

র‌্যাব’র ডিজি আজ সোমবার (১১ অক্টোবর) রাজধানীর বনানী-পূজামন্ডপ সরেজমিনে পরিদর্শন শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে শারদীয় দুর্গোৎসবের সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা তুলে ধরে এসব কথা বলেন।

আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, যেকোনো উদ্ভুত পরিস্থিতির জন্য র‌্যাব’র ডগ স্কোয়াড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। পূজামন্ডপসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে স্যুইপিং পরিচালনার পাশাপাশি র‌্যাব’র বোম ডিসপোজাল ইউনিট, র‌্যাব-স্পেশাল ফোর্সের কমান্ডো টিম ও এয়ার উইংয়ের হেলিকপ্টার প্রস্তুত রয়েছে।

দুর্গাপূজায় সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে র‌্যাবের পক্ষ থেকে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, সবধরনের অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি মোকাবিলায় র‌্যাব পর্যাপ্ত সংখ্যক সদস্য মোতায়েনের পাশাপাশি গোয়েন্দা নজরদারি বাড়িয়েছে।

বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে মহামারি করোনার প্রকোপ চলছে এ কথা জানিয়ে চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুর্গোৎসবের মূল আচার অনুষ্ঠান সম্পন্ন করতে হবে। এবছর পূজাকে কেন্দ্র করে কোনো ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির উদ্ভব যাতে না হয়, সে ব্যাপারে র‌্যাব’র সার্বিক প্রস্তুতি রয়েছে।

এর আগে র‌্যাব’র মহাপরিচালক পূজামন্ডপে উপস্থিত সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সাথে শারদীয় দুর্গাপূজার শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এ সময় তিনি বলেন, দুর্গাপূজা উৎসবকে ঘিরে কেউ যেন গুজব, অপপ্রচার ও উগ্রবাদী হামলার তৎপরতা চালাতে না পারে সেজন্য র‌্যাবের সাইবার মনিটরিং অব্যাহত থাকবে।

এছাড়াও উৎসবমুখর পরিবেশে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা যাতে দুর্গাপূজা উদযাপন করতে পারে সেজন্য রাজধানীসহ সারা দেশের প্রতিটি পূজামন্ডপে র‌্যাব সদস্যরা সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে বলেও তিনি জানান।

বাসের খবরে বলা হয়, র‌্যাবের মহাপরিচালক বলেন, গত ৫ অক্টোবর থেকে সারাদেশে র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারি শুরু হয়েছে। এছাড়াও আজ সোমবার থেকে আগামী ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা বহাল থাকবে।

পূজামন্ডপে আগত নারীদের ইভটিজিং ও উত্যক্তকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে উল্লেখ করে আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, এজন্য প্রতিটি পূজামন্ডপে অন-স্পর্ট ব্যবস্থা নিতে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে র‌্যাবের টহল টিমগুলো কাজ করবে। যেকোনো অভিযোগ ও তথ্য জানাতে র‌্যাবের হট লাইন ০১৭৭৭৭২০০২৯ নম্বরে যোগাযোগ করার জন্যও তিনি সবাইকে অনুরোধ জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, পুলিশসহ সরকারের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সব সংস্থার সাথে সমন্বয় করে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা এবং পর্যপ্ত সংখ্যক র‌্যাব-সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন্স), অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন), অধিনায়ক র‌্যাব-১, গুলশান-বনানী সার্বজনীন পূজা ফাউন্ডেশনের সভাপতি দিলীপ দাস গুপ্ত, সাধারণ সম্পাদক অলক সাহা ও সমন্বয়ক সন্তোষ শর্মা, পরিচালক (লিগ্যাল ও মিডিয়া উইং) এবং র‌্যাব সদর দফতরের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ হান্ট/আরকে

সর্বশেষ