বুধবার, ডিসেম্বর ১, ২০২১

নাটোরে বিএনপির সমাবেশ ঘিরে সংঘর্ষ, সাংবাদিকসহ আহত ২০

আরও পড়ুন

নাটোর থেকে সুফি সান্টু: নাটোরে বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে দলটির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। এ ঘটনায় নাটোর সদর থানার ওসি, ২ সাংবাদিকসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। সোমবার (২২ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নাটোর শহরের আলাইপুর দলীয় কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে আহত সাংবাদিকদের মধ্যে বাংলাভিশনের নাটোর প্রতিনিধি কামরুল ইসলাম ও দৈনিক যুগান্তরের নাটোর প্রতিনিধি শহিদুল হক সরকারকে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচী অনুযায়ী সোমবার সকাল ১০টায় নাটোর শহরের আলাইপুর দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ শুরু করে বিএনপি নেতাকর্মীরা। এ সময় বিএনপি নেতাকর্মীদের চাপে এক পর্যায়ে সড়কের একপাশ বন্ধ হয়ে গেলে পুলিশ বাধা দেয়। তর্ক-বিতর্কের এক পর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করে। এ সময় বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। চলে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ ও ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে।

এদিকে বিএনপির সাবেক ভূমি উপ-মন্ত্রী রুহুল কুদ্দুস তালুকদারের স্ত্রী ও বিএনপির নেতা সাবিনা ইয়াসমিন ছবি অভিযোগ করেছেন, শান্তিপূর্ণ সমাবেশে শুরুর আগেই তাদের নিরীহ নেতাকর্মীদের উপর পুলিশ নির্বিচারে লাঠিচার্জ, গুলিবর্ষণ ও কাঁদানো গ্যাস ছোঁড়ে । এ ঘটনায় তিনিসহ ২০ জন নেতাকর্মীকে আহত করা হয়েছে।

নাটোর সদর থানার ওসি (তদন্ত) আবু সাদাদ গণমাধ্যমকে জানান, বিএনপির সমাবেশে আমরা বাধা দিইনি। তাদের মিছিলের অনুমতি ছিল না। তবু তারা মিছিল করছিলেন। রাস্তা অবরোধ করার চেষ্টা করে । তিনি বলেন, বিএনপিই পুলিশের ওপর হামলা চালায়। পরে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে তাদের লাঠি চার্জ করে ছত্র ভঙ্গ করে দেয়।

এ ব্যাপারে নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার শাহা জানান, ঘটনার পর থেকে তিনি ব্যস্ত রয়েছেন, পুলিশের নাটোর সদর থানার ওসিসহ সাত জন সদস্য আহত হয়েছেন, তাদেরকে সদরে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

নিউজ হান্ট/কেএইচ

সর্বশেষ