সোমবার, ডিসেম্বর ৬, ২০২১

বিএনপি যত পারে গালি দিক, কিছু করার নেই: আইনমন্ত্রী

আরও পড়ুন

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা ইস্যুতে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, যেহেতু আইনে সুযোগ নেই। ওনারা (বিএনপি) আমাকে যত খুশি গালি দিতে পারেন। কিন্তু আমার কিছু আসে যায় না, আমি আইনানুযায়ী চলবো।

আজ বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে বিএনপির সংসদ সদস্য জিএম সিরাজের বক্তব্যের জবাবে এসব কথা বলেন আইনমন্ত্রী। এর আগে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে জিএম সিরাজ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মানবিক দিকবিবেচনায় দু’একদিনের মধ্যে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবি জানান।

সিরাজ বলেন, অন্তত মানবিক কারণে খালেদা জিয়াকে দু’একদিনের মধ্যে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানো হোক। ম্যাডামের একটা কিছু হয়ে গেলে এর দায়ভার আজীবন আওয়ামী লীগকে বহন করতে হবে। কিন্তু আইনমন্ত্রী আনিসুল হক তার এ দাবিকে নাকচ করে দেন।

এসময় সংসদে উপস্থিত আওয়ামী লীগের নারী সংসদ সদস্যসহ অন্যরা হইচই শুরু করেন। স্পিকার তাদের উদ্দেশ্যে বলতে থাকেন, আস্তে আস্তে মাননীয় সংসদ সদস্যরা।

এর আগে জিএম সিরাজ স্পিকারকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনি জানেন, আমি বগুড়া-৬ আসনের সংসদ সদস্য। আমাদের প্রাণপ্রিয় নেত্রী যিনি এ আসন থেকে বার বার নির্বাচিত হয়েছেন। তিন তিনবার দেশের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন যিনি, যার জীবনে কখনোই নির্বাচনে হারেননি, যার জন্য দেশবাসীর দোয়া করছেন। বিশেষ করে পোস্ট কোভিডের পর ম্যাডাম জিয়ার শারীরিক অবস্থা ক্রমান্বয়ে অবনতির দিকে যাচ্ছে, যা তাকে দিনে দিনে মৃত্যু মুখে ঠেলে দিচ্ছে। তাই আমাদের আবেদন অতি দ্রুত জামিন দিয়ে ম্যাডামকে দু’একদিনের মধ্যেই বিদেশে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হোক।

এরপর ফ্লোর নিয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, আমি সংসদ সদস্যের বক্তব্য শুনেছি। যা দুদিন আগে বলেছি তার পুনরাবৃত্তি করতে চাই না। আইনের অবস্থান অত্যন্ত পরিষ্কার। আইন যা বলেছে সেই মুহূর্তে মানবিক কারণে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা যদিও সাজাপ্রাপ্ত এবং দণ্ডপ্রাপ্ত খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত রেখে তাকে বাইরে রাখা হয়েছে।

নিউজ হান্ট/আরকে

সর্বশেষ