বুধবার, ডিসেম্বর ১, ২০২১

বিষন্নতা: যেসব বিষয়ে অবহেলা করা উচিত নয়

আরও পড়ুন

ডিপ্রেশন বা বিষন্নতা একটি বৈশ্বিক অসুস্থতা। গোটা বিশ্বের প্রায় চার শতাংশ মানুষের বিষন্নতা রয়েছে৷ চিকিৎসার মাধ্যমে এই অসুস্থতা দূর করা সম্ভব। চলুন বিষন্নতা নিয়ে আরো কিছু তথ্য জেনে নেয়া যাক।

ডিপ্রেশন বা বিষন্নতা যেকারো হতে পারে এবং এটি কোনো দুর্বলতার লক্ষণ নয়। এটা একধরনের অসুস্থতা যার লক্ষণ হচ্ছে দীর্ঘ সময় মন খারাপ থাকা, নিত্যদিনের কাজ যা আপনি উপভোগ করতেন তা করতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলা বা সেসব কাজ করা কঠিন মনে হওয়া।

বিষন্নতায় আক্রান্ত মানুষদের মধ্যে আরো অনেক লক্ষণ থাকতে পারে৷ যেমন তারা সারাক্ষণ দুর্বল অনুভব করতে পারে, তাদের খাদ্যের রুচি চলে যেতে পারে, ঘুম আগের চেয়ে কম বা বেশি হতে পারে, মনোযোগে বিঘ্ন ঘটতে পারে, সিদ্ধান্তহীনতা দেখা দিতে পারে, এমনকি নিজেকে মূল্যহীন মনে হতে পারে। মারাত্মক বিষন্নতা কাউকে নিজের ক্ষতি করা বা আত্মহত্যায়ও উৎসাহিত করতে পারে।

বিষন্নতার চিকিৎসা রয়েছে। একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে এটা দূর করা সম্ভব হতে পারে। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ঔষধও গ্রহণ করার প্রয়োজন হতে পারে।

বিষন্নতা অনুভব করলে আপনি এমন কারো সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে পারেন যাকে আপনি বিশ্বাস করেন। বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, অনেক সময় শুধু কথা বলেও বিষন্নতা কাটানো যেতে পারে।

আপনার ভালো লাগে এরকম কিছু কর্মকাণ্ড নিয়মিত করতে পারেন। পাশাপাশি বন্ধুবান্ধব এবং পরিবারের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখলে ভালো। খাওয়াদাওয়া এবং ঘুমের ক্ষেত্রেও একটি রুটিন অনুসরণ করতে পারেন।

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, নিয়মিত ব্যায়াম শরীরের জন্য ভালো। বিষন্ন মনে হলে ইচ্ছা না থাকলেও অন্তত বাইরে গিয়ে হাঁটাহাটি করুন। তবে বিষন্নতা কাটাতে মদ্যপান কোনো সমাধান নয়। এলকোহল বিষন্নতা আরো বাড়িয়ে দিতে পারে।

আপনার মধ্যে যদি আত্মহত্যার ইচ্ছা জাগে তাহলে আপনার বিশ্বস্ত কারো সঙ্গে যোগাযোগ করুন যাতে তিনি আপনাকে এই চিন্তা থেকে দূরে যেতে সহায়তা করতে পারে। অনেক দেশে এরকম পরিস্থিতিতে মানসিক সহায়তা পেতে জরুরি ফোন নম্বর রয়েছে।

নিউজ হান্ট/কেএইচ

সর্বশেষ