বুধবার, অক্টোবর ২৭, ২০২১

ভারতের উত্তরপ্রদেশে মন্ত্রীর সফর ঘিরে সংঘর্ষ, নিহত ৮

আরও পড়ুন

ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যে কৃষক বিক্ষোভে গাড়ি চাপায় আট জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে চার জন কৃষক।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্র এবং উপ মুখ্যমন্ত্রী কেশব মৌর্যের সফর নিয়ে রোববার সকালে রাজ্যের লক্ষ্মীপুর খেরিতে অবস্থান নিয়েছিলেন কৃষকেরা। সেখানে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন লক্ষ্মীপুর খেরির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অরুণ কুমার সিং।

এর আগে কৃষকদের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর গাড়িবহরে চাপা পড়ে দুই বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। ওই গাড়িতে প্রতিমন্ত্রীর ছেলে ও তাঁর আত্মীয়স্বজনেরা ছিলেন। আর ঘাতক গাড়িটির পথ রোধ করতে গিয়ে আরও চারজনের মৃত্যু হয়েছে। এর পরপরই আট জন নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।

ওই সময়ের ঘটনার একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, গাড়িতে আগুন জ্বলছে। এক ব্যক্তিকে আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। ওই এলাকায় প্রচুর পুলিশ অবস্থান করছে।

এই ঘটনার প্রতিবাদে আগামীকাল দুপুরে সারা দেশে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে কৃষক ইউনিয়ন। কৃষক নেকা রাকেশ টিকায়েত এবং পাঞ্জাব ও হরিয়ানার কৃষকেরা এরই মধ্যে উত্তর প্রদেশের ওই ঘটনাস্থলের দিকে রওনা হয়েছেন।

লক্ষ্মীপুর খেরির জেলা হাসপাতালের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ললিত কুমার সংবাদমাধ্যম এনডিটিভিকে জানান, দুজন ব্যক্তিকে মৃত অবস্থায় আনা হয়েছে। আরেকজনের অবস্থা গুরুতর ছিল। এখনো কোনো ময়নাতদন্ত করা হয়নি।

প্রতিমন্ত্রী মিশ্র ওই এলাকারই লোক। নিজ গ্রামে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন তিনি। সেখানে উপ মুখ্যমন্ত্রীর থাকার কথা ছিল।

কৃষকেরা তাঁদের যাত্রাপথ অবরোধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। কারণ প্রতিমন্ত্রী মিশ্র সম্প্রতি এক বক্তব্যে কৃষক বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন। তাঁর মতে, এটি ১০ থেকে ১৫ জন লোকের বিক্ষোভ। এদের সোজা করা দু মিনিটের কাজ!

কৃষক ইউনিয়নের নেতা ড. দর্শন পাল বলেন, উপ মুখ্যমন্ত্রীর হেলিপ্যাড ঘেরাও করার পরিকল্পনা ছিল কৃষকদের। এই কর্মসূচি শেষে সবাই যখন ফিরছিলেন, তখন আচমকা তিনটি গাড়ি আসে এবং কৃষকদের ওপর চালিয়ে দেয়। একজন কৃষক ঘটনাস্থলেই মারা গেছেন এবং অন্যদের হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। একজন কৃষক নেতা গুরুতর আহত হয়েছেন। তাঁকে লক্ষ্মীপুর খেরি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখনো হতাহতের সংখ্যা আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়নি।

নিউজ হান্ট/ম

সর্বশেষ