রবিবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২১

ভারতের মনিপুরে সন্ত্রাসী হামলায় কর্নেল ও তার স্ত্রী-সন্তানসহ নিহত ৬

আরও পড়ুন

মনিপুরে জঙ্গি হামলায় মৃত্যু হয়েছে ৪৬ আসাম রাইফেলসের কমান্ডিং অফিসারের। এ খবর জানিয়েছেন মনিপুরের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিং। তিনি জানিয়েছেন, সেই জঙ্গি হামলায় কর্নেলের পরিবার এবং একাধিক সেনাও মারা গেছেন।

সংবাদসংস্থা এএনআই জানিয়েছে, কনভয়ে কর্নেলের স্ত্রী এবং ছেলেও ছিলেন। সেই মারা গেছেন আরও তিনজন সেনা সদস্য।

আজ শনিবার (‌‌১৩ নভেম্বর) দুপুরে টুইটারে মনিপুরের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘৪৬ অসম রাইফেলসের কনভয়ে কাপুরুষোচিত আক্রমণের তীব্র নিন্দা করছি। সেই হামলায় কমান্ডিং অফিসার, তার পরিবার-সহ কয়েকজন জওয়ানের মৃত্যুর খবর পাওয়া যাচ্ছে। জঙ্গিদের খুঁজে বের করতে তল্লাশি চালাচ্ছে রাজ্য পুলিশ এবং আধাসামরিক বাহিনী। অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।’

সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, মিয়ানমার সীমান্তের কাছে চূড়াচন্দ্রপুর জেলায় সেই হামলা চালানো হয়েছে। মণিপুর-ভিত্তিক সন্ত্রাসী গোষ্ঠী পিপলস লিবারেশন আর্মি বা পিএলএ, এই হামলার পিছনে রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। যদিও কোনও গোষ্ঠী এখনও দায় স্বীকার করেনি।

পুলিশ সূত্র এনডিটিভিকে জানিয়েছে, দফায় দফায় গোলাগুলি চলছে। জেলার এই প্রত্যন্ত অঞ্চলে এই প্রথম অতর্কিত হামলায় বেসামরিক মানুষ মারা গেল। অবস্থানটি রাজ্যের রাজধানী ইম্ফল থেকে ১০০ কিলোমিটার উত্তরের একটি অত্যন্ত প্রত্যন্ত গ্রাম।

উত্তর-পূর্বাঞ্চলের অনেক রাজ্যের মতো মণিপুরেও ডজনখানেক সশস্ত্র গোষ্ঠী রয়েছে, যারা হয় বৃহত্তর স্বায়ত্তশাসন বা বিচ্ছিন্নতার জন্য লড়াই করছে।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, কয়েক দশক ধরে, চীন, মিয়ানমার, বাংলাদেশ এবং ভুটানের সাথে সীমান্ত রয়েছে এমন অঞ্চলে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে, তবে আন্তঃসীমান্ত অভিযান চালানোর কথা জানা যায়নি।

২০১৫ সালেও মনিপুরে সন্ত্রাসীদের হামলায় ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছিল।

নিউজ হান্ট/আরকে

সর্বশেষ