মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৭, ২০২১

ভারতে বানে ভেসে গেলেন ৩০ জন, মৃত ৩

আরও পড়ুন

ভারতে হঠাৎ সৃষ্ট বন্যা ভয়াবহ আকার নিয়েছে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে। বাঁধ ছাপিয়ে স্থানীয় চেইরু নদীর পানি ভাসিয়ে নিয়ে গেছে গ্রামের পর গ্রাম। অন্ধ্রের কারাপ্পা জেলায় হড়পা বানে মৃত্যু হয়েছে তিনজনের। স্রোতে ভেসে নিখোঁজ অন্তত ৩০ জন।

বঙ্গোপসাগরের ওপর নিম্নচাপের জেরে তুমুল বৃষ্টি হচ্ছে অন্ধ্রে। আবহাওয়া ভবন জানিয়েছে, তামিলনাড়ু ও অন্ধ্র উপকূলে আগামী কয়েকদিন ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে তিরুমালায়। সড়কপথ জলমগ্ন। জলের তোড়ে গাছপালা উপড়েছে, বিদ্যুৎ পরিষেবা বিপর্যস্ত।

স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, কার্তি পূর্ণিমা উপলক্ষ্যে চেইরু নদীর তীরে নন্দালুরুর শিব মন্দিরে ভিড় করেছিলেন দর্শনার্থীরা। আচমকাই প্রবল পানির স্রোতে ভেসে যান অনেকে। তিন জনের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। বাকিদের খোঁজ চলছে।

অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ওয়াই এস জগনমোহন রেড্ডি বলেছেন, নদী বাঁধে নির্মাণগত কিছু ত্রুটির কারণে জল উপচে বাইরে চলে আসে। প্রবল স্রোতে ভেসে যায় কিছু বাড়িঘর, দোকানপাট।

নভেম্বর মাস জুড়ে বৃষ্টির বিরাম নেই তামিলনাড়ুর চেন্নাইসহ একাধিক জেলায়। একই অবস্থা পুদুচেরীতেও। পাঁচশোরও বেশি বাড়িঘর ভেঙে গেছে। শহরের নীচু এলাকা জলমগ্ন।

আবহবিদরা জানিয়েছেন, তামিলনাড়ু ও অন্ধ্রে ভোগান্তির শেষ এখনই নয়। দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপের শক্তি বাড়ছে, ফলে ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণের সম্ভাবনা এখনই কমছে না। তামিলনাড়ু ও অন্ধ্রপ্রদেশের কিছু অংশে আরও কয়েকদিন ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। তামিলনাড়ুর চেন্নাই, চেঙ্গলপা‌ট‌্টু, ভিলপ্পুরম, কাঞ্চিপুরম-সহ ছয় জেলায় আগেই রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছিল।

নিউজ হান্ট/কেএইচ

সর্বশেষ