সোমবার, ডিসেম্বর ৬, ২০২১

‘সীমান্ত হত্যা বন্ধে ভারত সরকার সজাগ আছে’

আরও পড়ুন

সীমান্তে হত্যা বন্ধে ভারত সরকার সজাগ আছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী। তিনি বলেন, আমরা কোনো দেশেই সীমান্ত হত্যা চাই না।

আজ মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) ভারতের উপহার হিসেবে রংপুর সিটি করপোরেশনকে দেওয়া অ্যাম্বুলেন্স হস্তান্তর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, সীমান্তে যে কোনো হত্যাকাণ্ড বা হতাহতের ঘটনা উভয় দেশের জন্য দুঃখজনক ও অপ্রত্যাশিত। ২ দেশের পক্ষ থেকে সম্মিলিতভাবে উদ্যোগ নিয়ে এ ধরনের দুঃখজনক ঘটনা নিরসন করতে হবে। ভারতীয় সীমান্তরক্ষীকে সুনির্দিষ্টভাবে বলা হয়েছে, যদি তাদের ওপর হামলার কোনো শঙ্কা না থাকে, তবে যেন সীমান্তে কোনো অবস্থাতেই গুলি না চালায়। আমরা কোনো দেশেই সীমান্ত হত্যা চাই না।

তিনি আরও বলেন, কোনো জীবন নষ্ট হওয়া কখনোই কাম্য নয়। সীমান্তে অবৈধ কার্যক্রম বেড়েছে। বাংলাদেশকে বিভিন্ন দেশ রুট হিসেবে ব্যবহার করে উপকৃত হতে চেষ্টা করছে। সীমান্ত হত্যা বন্ধ করতে হলে চোরাচালান বন্ধ করতে হবে। চোরাচালানের কারণে সীমান্তে হত্যার ঘটনা ঘটছে। তবে আগামীতে সীমান্ত হত্যার মতো ঘটনা যেন না ঘটে সে ব্যাপারে ভারত সরকার সজাগ রয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, প্রতিশ্রুতি পূরণে ভারত সব সময় বাংলাদেশের পাশে ছিল। মহামারী করোনা মোকাবিলায় ভারতের পক্ষ থেকে বাংলাদেশকে পিপিই, চিকিৎসা সামগ্রী, টেস্টিং কিট, ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক অনেক ভালো। ভারতের প্রয়োজনে প্রকৃত বন্ধু হিসেবে বাংলাদেশও পাশে দাঁড়িয়ে ছিল। এই সম্পর্ক ভবিষ্যতেও ভালো থাকবে।

বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, করোনা মহামারির শুরুর দিকে ভারতীয় জনগণের পক্ষ থেকে বাংলাদেশকে অ্যাম্বুলেন্সসহ বিভিন্ন চিকিৎসা সামগ্রী উপহার দেওয়া হয়। জনগণের কল্যাণে ভারত তার সামর্থ্য অনুযায়ী বাংলাদেশকে সহায়তা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। তার ধারাবাহিকতার অংশ হিসেবে নগরবাসীর স্বাস্থ্য সেবা এগিয়ে নিতে রংপুর সিটি করপোরেশনকে একটি অত্যাধুনিক অ্যাম্বুলেন্স উপহার দেওয়া হলো।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার (রাজশাহী) সঞ্জিব কুমার ভাট্টি, রংপুর সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন মিঞা, প্যানেল মেয়র মাহমুদুর রহমান টিটুসহ অনেকে।

পরে রংপুর নগরের মাহিগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে নির্মিত নতুন একাডেমিক ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেন ভারতীয় হাইকমিশনার। দেশটির অর্থায়নে নতুন এ ভবনটি নির্মিত হয়েছে।

নিউজ হান্ট/আরকে

সর্বশেষ